• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » দুই কমিটির তদন্তেও স্পষ্ট হলো না, কোথা তেকে এসেছে রহস্যেই থেকে গেলো আইএস’র টুপি


দুই কমিটির তদন্তেও স্পষ্ট হলো না, কোথা তেকে এসেছে রহস্যেই থেকে গেলো আইএস’র টুপি

আমাদের নতুন সময় : 07/12/2019


ইসমাঈল ইমু : আদালত পাড়ায় কঠোর নিরাপত্তার মধ্যেও হলি আর্টিসান হামলা মামলার দন্ডপ্রাপ্ত দুই আসামির মাথায় ‘আইএসের চিহ্ন-সংবলিত টুপি’ কীভাবে এলো, তা দুই কমিটির তদন্তেও স্পষ্ট হয়নি। ওই ঘটনায় কারা অধিদফতর ও ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন করেছিল। দুই কমিটির তদন্তেই অজানা রয়ে গেলো আইস টুপির রহস্য।
নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা বলছেন, আইএস টুপি’র বিষয়টি হালকাভাবে দেখে দায় এড়ানোর সুযোগ নেই। আইএস মতাদর্শী জঙ্গিরা প্রচারণার বড় কৌশল হিসেবে এটিকে বেছে নিয়েছিল। সঠিক তদন্তে টুপি রহস্য উদ্ঘাটন করা উচিত। তদন্তে যারা অভিযুক্ত প্রমাণিত হবেন, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।
কারা অধিদফতর কর্তৃক গঠিত তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটির প্রধান ছিলেন অতিরিক্ত আইজি প্রিজন কর্নেল আবরার হোসেন। অপর দুই সদস্য হলেন- ঢাকা বিভাগীয় ডিআইজি (প্রিজন) টিপু সুলতান ও এআইজি প্রিজন (ট্রেনিং) আমিরুল ইসলাম। তারা গত ৩০ নভেম্বর তদন্ত শেষে কারা মহাপরিদর্শকের (আইজি প্রিজন) কাছে প্রতিবেদন জমা দেন।
কারা অধিদফতরের ডিআইজি টিপু সুলতান বলেন, সেদিন আইএসের চিহ্ন সংবলিত টুপি কারাগার থেকে যায়নি। এ টুপির বিষয়ে কারা কর্মকর্তাদের গাফিলতিও নেই। মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম বলেন, আমরা ভিডিও ফুটেজ বিশ্লেষণ করেছি। কারাগার থেকে বের হওয়ার সময় তল্লাশি করা হয়েছে। তবে তাদের কাছে যে টুপি ছিল, তা রেখে দেয়া হয়নি। বরং নির্বিঘেœ টুপি নিয়ে আসতে দেয়া হয়েছে। মোট তিনটি টুপি এসেছিল, এর মধ্যে দুটি সাদা ও একটি কালো। তবে কোনো লোগো ফুটেজে ধরা পড়েনি। কর্মরত কারারক্ষীরা হয়তো বুঝতেই পারেননি, এটা খুবই তাৎপর্যপূর্ণ। টুপি তো নামাজের অংশ তাই হয়তো তারা ছেড়ে দিয়েছেন। জঙ্গিদের এমনও হতে পারে, তারা যে টুপি কারাগার থেকে এনেছিল, আদালতে রায় শোনার পর তা তারা উল্টে পড়েছে।
তবে রাকিবুল হাসান রিগ্যানের কাছে গত ৩ ডিসেম্বর বিচারক মজিবুর রহমান আইএস’র টুপি পাওয়ার বিষয়ে জানতে চান। তিনি সে সময় বলেন, আদালতে ভিড়ের মধ্যে কেউ একজন তাকে আইএস’র টুপি দিয়েছিল।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]