• প্রচ্ছদ » » ভিপি নূরের আল্টিমেটাম ও মফিজের তথ্যানুসন্ধান


ভিপি নূরের আল্টিমেটাম ও মফিজের তথ্যানুসন্ধান

আমাদের নতুন সময় : 07/12/2019

হাসান বিন বাংলা

পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা উপজেলার চরবিশ্বাস ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের উত্তর চরবিশ্বাস গ্রামের ইদ্রিস হাওলাদারের ছেলে নুরুল হক নূর। ১৯৭৫ সালে পটুয়াখালীর জেলার বাউফল উপজেলার কালাইয়া ইউনিয়নের শৌলা গ্রামের পৈতৃক নিবাস ছেড়ে নুরুলের বাবা, দাদা ও তিন চাচা গলাচিপার উত্তর চরবিশ্বাস এলাকায় বসবাস শুরু করে। নূরুর পারিবারিক ইতিহাস ঘেঁটে জানা যায় যে, ১৯৯১ সালে তার পিতা ইদ্রিস হাওলাদার নিজ এলাকায় ইউপি সদস্য নির্বাচিত হন। তাদের ছয় থেকে সাত কানি জমি ও ছোট্ট পারিবারিক ব্যবসা রয়েছে। অত্যন্ত সাধারণ পরিবারের সন্তান নূর। তার পাঁচ ভাই ও তিন বোন রয়েছে। নুরুলের বড় ভাই নুরুজ্জামান হাওলাদার ও ছোট ভাই আমিনুল ইসলাম ঢাকা উত্তরা এলাকায় মুদি মনোহরী ও গেঞ্জি বিক্রির ব্যবসা করে। তার পাঁচ বোনের মধ্যে তিন বোন বিবাহিত।
এই ছোট্ট ইতিহাসে নূরুকে খাটো করা হচ্ছে না বরং বিষয়টি নূরের জন্য গৌরবের যে, অতি সাধারণ পরিবারের সন্তান হয়েও সে ঢাবির একজন কৃতী ছাত্র এবং ভিপি হওয়ার মর্যাদা লাভ করেছে। সাম্প্রতিক দুয়েকটি অডিও কেলেঙ্কারির কারণে তথ্যটুকু সংযুক্ত করলাম। প্রচÐ সমালোচনার মুখে নূর বলেছেন, উক্ত আলাপচারিতা একান্তই ব্যক্তিগত ও পারিবারিক ব্যবসা সংক্রান্ত বিষয়। নুর আরও বলেছেন, গত ৩ ডিসেম্বর নিউজ টুয়েন্টিফোর ও ডিবিসি চ্যানেলে আমার কথোপকথনের এক অডিও ক্লিপের খÐিতাংশ বিকৃতভাবে প্রচার করে ভুলভাবে ব্যাখ্যা দেয়, যা আমার সম্মানহানি ও জনমনে বিভ্রান্তির সৃষ্টি করেছে। অডিওটির প্রথম অংশের কথোপকথন ছিলো আমার খালা ও আমার পরিচিত এক ভাইয়ের সঙ্গে। যেখানে আমার খালার কনস্ট্রাকশন ফার্মের ১৩ কোটি টাকার এক কাজের ব্যাংক গ্যারান্টি নিয়ে ভাইয়ের সঙ্গে আমি আলোচনা করেছিলাম।
নূর ইতোমধ্যেই তিনটি গণমাধ্যমকে ক্ষমা চাইতে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছেন। এনিহাউ, গণমাধ্যম তাদের জবাবদিহিতা করবে, কিন্তু প্রশ্ন হলো যার দুই ভাই পটুয়াখালী থেকে জীবিকার অন্বেষণে ঢাকা এসে মুদির দোকানদারি এবং গেঞ্জি বিক্রির মতো ছোটখাটো ব্যবসা করেন, তাদের পারিবারিক ব্যবসা এতোটা ফুলেফেঁপে উঠলো কীভাবে?
নূরের সেই আন্টি কে? নূরের সেই পরিচিত ভাইটি কে এবং সব কিছুর সঙ্গে নূরের সম্পর্ক কি? তাছাড়া প্রবাসী ব্যক্তিটির পরিচয় কী? নূরুকে কেন সেই প্রবাসী ব্যক্তি টাকা দিতে চেয়েছিলো? নূর কেনইবা বিষয়টি নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপে আলাপচারিতার আকুতি জানালো? সেই আলাপচারিতার সবশেষ পরিণতি কী? অবশ্যই নূরুকে এই বিষয়গুলোর যথাযথ উত্তর দিতে হবে। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]