• প্রচ্ছদ » » ট্রানজিট ও কাস্টমস ছাড়া ভারতকে বাংলাদেশের সমুদ্রপোর্ট ব্যবহার করতে দেয়া ক‚টনৈতিক ব্যর্থতা


ট্রানজিট ও কাস্টমস ছাড়া ভারতকে বাংলাদেশের সমুদ্রপোর্ট ব্যবহার করতে দেয়া ক‚টনৈতিক ব্যর্থতা

আমাদের নতুন সময় : 08/12/2019

কামরুল হাসান মামুন

‘বন্ধু ভারত আতঙ্ক সৃষ্টির মতো কিছু করবে না আশা পররাষ্ট্রমন্ত্রী’র রাষ্ট্র পরিচালনা কী এ রকম আশ্বাস-বিশ্বাস দিয়ে চলে? এ রকম পরিস্থিতিতে পৃথিবীর কোনো পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে এ রকম বক্তব্য দেয়া কি কল্পনা করা যায়? ডিপ্লোম্যাসি বা ক‚টনীতিতে সবকিছু সমানে সমান। সব কিছুর হিসাব আলোচনার টেবিলে নধৎমধরহ করে অর্জন করতে হয়। সেখানে কোনো দান-দক্ষিণা ও বন্ধুত্বের কোনো মূল্য নেই। সব কিছুই হার্ডটকের মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়। ক‚টনীতিতে আরেকটি ব্যর্থতার স্বাক্ষর হলো কোনো প্রকার ট্রানজিট ও কাস্টমস ছাড়া ভারতকে বাংলাদেশের সমুদ্রপোর্ট ব্যবহার করতে দেয়া। এখানেও সেই ব্যর্থতা। স্বার্থক ক‚টনীতি কেবল তখনই সম্ভব যখন দুটো দেশ সমান মর্যাদা নিয়ে ইকুয়াল ফুটিংসে থাকে। কারও কাছ থেকে ফেভার নিলে তার সঙ্গে আর ক‚টনৈতিক কেন কোনো নধৎমধরহ-ই আর সম্ভব নয়। সম্প্রতি নিউএইজ পত্রিকায় একটি প্রতিবেদন পড়ে মনটা খুব বেদনাহত হয়েছে। বাংলাদেশে তো আরও অনেক পত্রিকা আছে। আর কেউ এটা নিয়ে রা করেনি। আমাদের ক‚টনৈতিক ব্যর্থতা দেখে খুবই বেদনাহত হয়েছি। বন্ধুত্ব হতে হয় ইকুয়াল ফুটিংসের ভিত্তিতে। মনিব-ভৃত্যের মাঝে কখনো বন্ধুত্ব হয় না। এই বিষয়ে আমি ভারতের বিন্দুমাত্র দোষ দেখি না। তারা তাদের যোগ্যতা প্রমাণ সাপেক্ষে সর্বোচ্চ দেশপ্রেম দেখিয়েছে। আর আমরা আমাদের বলদামির প্রমাণ সাপেক্ষে সর্বোচ্চ ক্ষমতা প্রেম দেখিয়েছি। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]