শেষ নির্বাচনী টিভি বিতর্কে ব্রেক্সিট নিয়ে বরিস-করবিন কথার লড়াই

আমাদের নতুন সময় : 08/12/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : শুক্রবার নির্বাচনের আগে শেষ টিভি বিতর্কে মুখোমুখি হন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতা। আগামী সপ্তাহে অনুষ্ঠিতব্য ব্রিটিশ নির্বাচনেই যুক্তরাজ্যের ইউরোপ ত্যাগের পথ নির্ধারিত হবে বলে মনে করা হচ্ছে। ইয়ন নিউজ।
গত ৩ বছরের মধ্যে দ্বিতীয়বার সাধারণ নির্বাচনে ভোট দেবে ব্রিটিশ জনগণ। এই বিতর্ককে বলা হচ্ছিলো বরিসের জনপ্রিয়তা কমিয়ে নিজের জনপ্রিয়তা বাড়িয়ে নেবার শেষ সুযোগ। এই বিতর্কের একটি জরিপ বলছে ৫২ শতাংশ টিভি দর্শক মনে করেন এতে জনসনই বিজয়ী। দুই নেতার বিতর্কের প্রধান আলোচ্যই ছিলো ইউরোপীয় ইউনিয়ন ত্যাগ এবং অভ্যন্তরীণ নীতিমালা। করবিন বলেন, ‘সমাজতন্ত্র সবসময় প্রতিষ্ঠিত হয়, গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতেই।’ আর বরিস জনসন বলেন, ‘করবিনের সমাজতন্ত্রের স্বপ্ন বাস্তবায়িত হলে যুক্তরাজ্য ঋণের ফাঁদে ফেঁসে যাবে।’
আরও একটি গণভোটের প্রতি জেরেমি করবিনের সমর্থনের তীব্র সমালোচনা করেন বরিস জনসন। তবে করবিন বলেছেন, নতুন গণভোট হলে তিনি নিরপেক্ষ অবস্থান নেবেন। তিনি এও বলেন প্রধানমন্ত্রীর ব্রেক্সিট পরিচালনা বাস্তবায়নে কয়েক বছরের বাণিজ্য আলোচনা প্রয়োজন। বিবিসিেিত হওয়া এই বিতর্কে বরিস বলেন, ‘আমরা একটি মুক্ত বাণিজ্য আলোচনার জন্য যথেষ্ঠ সময় পেয়েছি। আমরা শুধু ইইউ নয়, অন্যান্য দেশের সঙ্গেও চুক্তি করবো।’ কিন্তু করবিন মনে করেন, এ ধরণের চুক্তির আগে আলোচনার জন্য সরকারের কমপক্ষে ৭ বছর সময় লাগবে। আগামী বছরও ইউরোপ ত্যাগ করতে পারবে না যুক্তরাজ্য। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]