• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » ডাবল সেঞ্চুরির পর ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ভর্তুকিতে পেঁয়াজ বিক্রি, মন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা


ডাবল সেঞ্চুরির পর ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ভর্তুকিতে পেঁয়াজ বিক্রি, মন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা

আমাদের নতুন সময় : 09/12/2019

রাশিদ রিয়াজ : ভারতে পেঁয়াজ সংকটে সাধারণ মানুষকে স্বস্তি দিতে পশ্চিমবাংলায় ন্যায্যমূল্যে বিক্রি শুরুর আগে তামিলনাড়ুর মাদুরাইতে পণ্যটির কেজি ২’শ রুপি ছাড়িয়ে যায়। মহারাষ্ট্রের সোলাপুরেও রোববার প্রতি কেজি পেঁয়াজ ২০০ রুপি দরে বিক্রি হয়েছে। পশ্চিমবাংলা রাজ্য সরকার ‘সুফল বাংলা’র দোকানে ১০২ রুপি কেজি দরে কিনে তা ভর্তুকিতে ৫৯ রুপিতে বিক্রি হচ্ছে। রোববার থেকে সস্তায় পেঁয়াজ বিক্রি শুরু হলে রাজ্যের ৩০০টি স্বনির্ভর গোষ্ঠীর দোকানে ভিড় লেগে যায়। খোলাবাজারে পেঁয়াজ অগ্নিমূল্য আর পাইকারি বাজারে পেঁয়াজ কার্যত উধাও। আমদানির কথা বলা হলেও এখনো সে পেঁয়াজের চিহ্ন দেখা যাচ্ছে না। পশ্চিমবাংলার পোস্তা পাইকারি বাজারে নাসিক-সহ দক্ষিণের রাজ্যগুলি থেকে প্রতিদিন দশ থেকে পনেরো গাড়ি পেঁয়াজ আসে, গত মঙ্গলবার এসেছে মাত্র ছ’গাড়ি। শিয়ালদহ বাজারে মাত্র এক গাড়ি পেঁয়াজ এসেছে। কম আমদানির জেরে খোলাবাজারে দামও উঠছে লাফিয়ে-লাফিয়ে। টাইমস অব ইন্ডিয়া/এনডিটিভি/বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড।
ভারতের কেন্দ্রীয় খাদ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে ‘প্রতারণা ও বিভ্রান্ত করার’ অভিযোগে মুজ্জাফ্ফরপুর মুখ্য বিচারবিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে মামলাটি করেছেন এম রাজু নায়ার নামে জনৈক সমাজকর্মী। তার বক্তব্য, খাদ্যমন্ত্রী হিসেবে পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণ করা রামবিলাশ পাসোয়ানের দায়িত্ব। কিন্তু সেই দায়িত্ব পালনে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছেন মোদী সরকারের এই মন্ত্রী। এইভাবে তিনি সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। আগামী ১২ ডিসেম্বর মামলার শুনানির দিন স্থির করেছেন বিচারক মৌর্য কান্ত তিওয়ারি।
এশিয়ার বৃহত্তম বাজার লাসালগাঁওয়ে গত বৃহস্পতিবার পেঁয়াজ এসেছে মাত্র ৫,২০০ কুইন্টাল (১ কুইন্টাল= ১০০ কেজি)। যেখানে প্রতিদিন ১২ থেকে ১৫ হাজার কুইন্টাল পেঁয়াজের যোগান থাকে। এই পেঁয়াজের বাজারে, এখন কুইন্টাল প্রতি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১০ হাজার রুপিতে। মুম্বাইয়ের ভাশি মার্কেটে কেজি প্রতি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১৩০ রুপিতে। সেখানে বাণিজ্যনগরীর খুচরো মার্কেটে পেঁয়াজের দর যাচ্ছে কেজিতে ১৪০ থেকে ১৬০ টাকা। মুম্বাই থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে লাসালগাঁও থেকে গোটা ভারতে পেঁয়াজ সরবরাহ করা হয়। কিন্তু পেঁয়াজের দর ২০০-র ঘর ছুঁতেই এক ধাক্কায় ক্রেতা প্রায় ৯০ শতাংশ কমে যাওয়ায় ব্যবসা বন্ধ হওয়ার উপক্রম বলে জানিয়েছেন মাদুরাইয়ের ব্যবসায়ীরা। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]