• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » বরিশালের ট্রিপল মার্ডার মামলার রহস্য উদঘাটন, স্বর্ণালঙ্কারের লোভে হত্যাকা-


বরিশালের ট্রিপল মার্ডার মামলার রহস্য উদঘাটন, স্বর্ণালঙ্কারের লোভে হত্যাকা-

আমাদের নতুন সময় : 09/12/2019

 

বরিশাল প্রতিনিধি : জেলার বানারীপাড়া উপজেলার চাঞ্চল্যকর ট্রিপল মার্ডার মামলার আসামি ১৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেপ্তার করে আলামত উদ্ধার করেছে র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা।
গতকাল রোববার দুপুরে র‌্যাব-৮ এর সদর দপ্তর থেকে পাঠানো এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করা হয়েছে। র‌্যাব সূত্রে জানা গেছে, শনিবার ভোরে বানারীপাড়া উপজেলার সলিয়াবাকপুর গ্রামের বাসিন্দা কুয়েত প্রবাসী হাফেজ আব্দুর রবের বাড়িতে তিনজনকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। এই লোমহর্ষক ঘটনার রহস্য উন্মোচনে পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব-৮ ছায়া তদন্ত শুরু করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ ও র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা যৌথ অভিযান চালিয়ে হত্যাকা-ে সংশ্লিষ্টতার সন্দেহে জাকির হোসেন (৩৫) নামের এক গ্রাম্য কবিরাজকে আটক করে। জাকির হোসেন ওই বাড়ির নির্মাণ শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি (জাকির) জিন হাজির ও ঝাড়-ফুঁকের মাধ্যমে বিভিন্নরোগের চিকিৎসা করে বলে প্রথমে প্রচার করে। তিনি বাড়ির সবার বিশ্বস্ততা অর্জন করেন বলে জানান। এর সুযোগ নিয়ে বাড়িতে জিন আসবে বলে রাতে দরজা খোলা রাখার কথা বলেন তিনি। রাতে ওই বাড়িতে কৌশলে প্রবেশ করে একজন সহযোগিকে নিয়ে পর্যায়ক্রমে কুয়েত প্রবাসী আব্দুর রবের মা মরিয়ম বেগম, বোন জামাই শফিকুল আলম ও খালাতো ভাই ইউসুফ হোসেনকে হত্যা করে।
র‌্যাব সূত্রে আরও জানা গেছে, জাকিরের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী র‌্যাব-৮ তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় হত্যাকা-ের সাথে জড়িত অপর আসামি জুয়েল হাওলাদারকে (৩৪) বরিশালের কোতোয়ালি মডেল থানাধীন পশ্চিম মতাশুর মুহুরীকান্দা এলাকা থেকে আটক করে। আটক দুইজনই প্রাথমিকভাবে হত্যাকা-ের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।
জাকির হোসেন ও জুয়েল হাওলাদারের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী র‌্যাব-৮ ও পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে জাকির হোসেনের ভাড়াবাড়ি নগরীর সাগরদীর মুন্সিবাড়ী থেকে হত্যাকা-ের পর প্রবাসীর বাড়ি থেকে ছিনতাই করে আনা স্বর্ণালঙ্কার, তিনটি মোবাইল সেট ও একটি চাক্কু উদ্ধার করেছেন। পরে আটক আসামি ও আলামতগুলো বানারীপাড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়। সম্পাদনা : মুরাদ হাসান, ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]