• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » পরবর্তী জনপ্রশাসন সচিব নিয়ে নানা গুঞ্জন, নতুন কেউ হবেন নাকি চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের মাধ্যমে আগের জনই থাকবেন?


পরবর্তী জনপ্রশাসন সচিব নিয়ে নানা গুঞ্জন, নতুন কেউ হবেন নাকি চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের মাধ্যমে আগের জনই থাকবেন?

আমাদের নতুন সময় : 10/12/2019

 

আনিস তপন : সরকারের গুরুত্বপূর্ণ জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের পরবর্তী সচিব পদে নিয়োগ পেতে এরই মধ্যে শুরু হয়েছে নানামুখী লবিং।
এরই মধ্যে যাদের নাম আলোচনায় এসেছে তারা হচ্ছেন- স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল, আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম, স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আনিছুর রহমান ও শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব কেএম আলী আজম।
জনপ্রশাসন সচিব ফয়েজ আহম্মদের চাকরির মেয়াদ শেষ হবে চলতি মাসের ৩১ তারিখে। এর মধ্যে গত সোমবার বর্তমান মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামকে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দিয়ে আরো এক বছররের জন্য একই পদে পদায়ন করেছে সরকার। তাই ফয়েজ আহম্মকেও চুক্তি ভিত্তিক নিয়োগ দিয়ে একই পদে পদায়ন করা হতে পারে বলে মনে করছেন প্রশাসনের সিনিয়র অনেক কর্মকর্তা।
নতুন যাদের নাম আলোচনায় এসেছে তাদের সবাই বর্তমান সরকারে অত্যন্ত আস্থাভাজন। জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল এর আগে প্ল্যানিং কমিশনের মেম্বার, আইসিটি বিভাগের মহাপরিচালকসহ প্রশাসনের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি প্রশাসনের ৮৪ ব্যাচের কর্মকর্তা।
আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম পিএএ এর আগে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের (সংস্কার ও সমন্বয়) সচিব এবং অভিবাসন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ কিছুদিন আগেও নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের সচিব ছিলেন। বিগত জাতীয় নির্বাচনে তার ভূমিকা সকল মহলে বেশ আলোচিত হয়।
আলোচিত আরেক কর্মকর্তা মো. আনিছুর রহমান বর্তমানে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। গত হজ মৌসুমে সৌদি আরবে বাংলাদেশি হাজীদের হজ ব্যবস্থাপনায় কোনোরকম বিতর্ক তৈরীর সুযোগ না দেয়ায় সরকারের সব মহলেই সমাদৃত হয়েছেন বলে প্রশাসনের অনেক কর্মকর্তার দাবি।
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে নিয়োগ পেতে পারেন এমন গুঞ্জনে থাকা আরেক কর্মকর্তা কেএম আলী আজম সরকারের শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে চলতি বছরের মে মাসে নিয়োগ পেয়েছেন। এর আগে ঢাকার বিভাগীয় কমশিনারসহ সরকারের গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।
এ প্রসঙ্গে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, যাদের নাম আলোচনায় আসছে এদের বাইরেও কেউ পেতে পারেন গুরুত্বপূর্ণ এই পদটির দায়িত্ব। আসলে বিষয়টি সম্পূর্ন নির্ভর করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপর। সম্পাদনা : মাসুদ কামাল




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]