• প্রচ্ছদ » লিড ১ » বিজয় দিবস থেকে জয় বাংলা জাতীয় শ্লোগান হিসেবে ব্যাবহারের অভিমত দিয়েছেন হাইকোর্ট


বিজয় দিবস থেকে জয় বাংলা জাতীয় শ্লোগান হিসেবে ব্যাবহারের অভিমত দিয়েছেন হাইকোর্ট

আমাদের নতুন সময় : 10/12/2019

নূর মোহাম্মদ : আগামী ১৬ ডিসেম্বর থেকে সকল জাতীয় দিবস ও রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে হিসেবে ‘জয় বাংলা’ জাতীয় শ্লোগান হিসেবে ব্যবহারের অভিমত দিয়েছেন হাইকোর্ট। এ সংক্রান্ত রুলের শুনানিতে গতকাল মঙ্গলবার বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের বেঞ্চ এ অভিমত দেন। এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ১৪ জানুয়ারি ঠিক করেছেন আদালত।
শুনানিতে আদালত বলেন, জাতীয় শ্লোগান হিসেবে জয় বাংলাকে ব্যবহার করতে দ্বিধা কোথায়? আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামের সঙ্গে এই শ্লোগান ওতপ্রোতভাবে জড়িত। অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, জয় বাংলা শ্লোগান ইতিহাসের অংশ। ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণে জয় বাংলা শ্লোগান দেয়া হয়। এই শ্লোাগানের মাধ্যমে মহান মুক্তিযুদ্ধে বাঙালি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলো। এটা শুধু একটা শ্লোগানই নয়, চেতনার নামও। একে ধারণ করেই মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে দেশ স্বাধীন হয়েছে। কিন্তু ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টে জাতির পিতাকে নির্মমভাবে হত্যার পর এই শ্লোগান নিষিদ্ধ হয়ে যায়।
সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ বলেন, এই জয় বাংলা শ্লোগান সম্পর্কে ভবিষ্যত প্রজন্মকে জানানো উচিত। এটি আমাদের জন্য একটা শক্তি। অ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু বলেন, জয় বাংলাকে জাতীয় শ্লোগান করা হলে এতে কোন অন্যায় হবে না। এ বিষয়ে আমার পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। আদালত বলেন, এক সময় এই স্লোগানকে বিকৃত করার চেষ্টা করা হয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট বার সভাপতি এম আমিনউদ্দিন বলেন, আদালত রুল যথাযথ ঘোষণা করতে পারে।
পরে আদালতের বাইরে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এবিএম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার সাংবাদিকদের বলেন, সংবিধানের ৩ এবং ৪ অনুচ্ছেদে রাষ্ট্রভাষা, রাষ্ট্রের প্রতীক, জাতীয় সংগীত, জাতীয় পতাকা সব আছে। কিন্তু জাতীয় শ্লোগান নেই। এবং সংবিধানের ৫০(২) অনুচ্ছেদ অনুসারে ৭ মার্চের ভাষণকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। রাষ্ট্রপক্ষ লিখিতভাবে এ আবেদনকে সমর্থন করেছে।
মাহমুদ বাশার জানান, আদালত বলেছেন, সামনে ১৬ ডিসেম্বর আছে বা পরবর্তীতে যে কোনো জাতীয় দিবসে রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রের শীর্ষ পর্যায় থেকে সর্বস্তরের দায়িত্বশীল ব্যক্তি তাদের বক্তব্যের শেষে ‘জয় বাংলা’ শ্লোগান দিতে হবে।
ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন বলেন, জয় বাংলা ছিল আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামের মূল মন্ত্র। যে শ্লোগান দিয়ে মুক্তিযোদ্ধারা যুদ্ধ করেছেন, জীবন দিয়েছেন, শহীদ হয়েছেন। সেটাকে সংবিধানে অন্তর্ভূক্ত করে এটাকে জাতীয় শ্লোগান হিসেবে ব্যবহার করা হোক। অনেকদেশে এটা আছে। আবদুল মতিন খসরু বলেন, একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধে দলমত নির্বেশেষে সবার হৃদয় উৎসারিত শব্দ ছিল জয়বাংলা। আমরা আশা করি আদালত জয়বাংলার পক্ষে রায় দিবেন।
এর আগে ২০১৭ সালে শুনানি শেষে রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। সম্প্রতি গত ৫ ডিসেম্বর থেকে এ রুলের শুনানি শুরু হয়। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]