• প্রচ্ছদ » » বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান : ক্রিকেট বা ক্রিকেটার কই?


বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান : ক্রিকেট বা ক্রিকেটার কই?

আমাদের নতুন সময় : 10/12/2019

 


মাসুদ কামাল
এবার প্রথমবারে মতো বিপিএলের সঙ্গে জুড়ে ছিল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নাম। সে কারণেই বোধকরি এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান নিয়ে মানুষের মধ্যে প্রত্যাশাটা ছিল একটু বেশী। কিন্তু সে প্রত্যাশার ধারে কাছেও এটি পৌছতে পারেনি। অনেকেই বলছেন ভারতীয় শিল্পীদের আধিক্যের কথা। এ অভিযোগ অসত্য নয়। এ নিয়ে কিছু বলার আগে আমি বলতে চাই অনুষ্ঠানটির চরিত্র নিয়ে। এটি তো একটি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ছিল, নাকি? কিন্তু এখানে ক্রিকেট কই, ক্রিকেটারই বা কোথায়? দেশের সেরা ক্রিকেটারদেরকে তো মঞ্চে আনা যেত। অথবা এমন কিছু করা যেত যা থেকে ক্রিকেটের বৈশিষ্টটি প্রকাশিত হয়।
ভারতীয় শিল্পীর আধিক্যের বিষয়টি দেখলাম বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের একজন কর্মকর্তাও পরদিন স্বীকার করেছেন। ঠিক আছে ভারত আমাদের অতি ঘনিষ্ঠ দেশ, আমাদের বন্ধুত্ব অনেক গভীর। তাহলে সেখান থেকে ক্রিকেটার কেন আনতে পারলেন না? বিপিএলে ভারতীয় ক্রিকেটার থাকলে নিশ্চয়ই এর মর্যাদা আরও বাড়তো, পেতো বেশি দর্শকপ্রিয়তাও। তাহলে কি ক্রিকেটার আনতে না পারার ব্যর্থতা ঢাকতেই বিপুল অর্থ ব্যয়ে ভারতের হিন্দিভাষী শিল্পীদের আনা হয়েছে? ভারতে বাংলাভাষী বড় বড় শিল্পী কি নেই? তাদেরও তো আনা যেতো। নাকি রুনা লায়লা, সাবিনা ইয়াসমিন, মমতাজদের মত জনপ্রিয় শিল্পীদের বাদ দেয়ার অজুহাত খুঁজে পেতেই পশ্চিম বঙ্গের শিল্পীদের সচেতনভাবে এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে?
এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠান নিয়ে দেখলাম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ সমালোচনা চলছে। একজন প্রশ্ন তুলেছেন অনুষ্ঠান উপস্থাপনার মান নিয়ে। এ প্রশ্নকে উড়িয়ে দেয়া যাবে না। উপস্থাপনাটা যে একটা আর্ট, এটি যে এখন পেশাদারিত্বে রূপ নিয়েছে- বয়স্ক দুই নারী পুরুষের আচরণে তার টের পাওয়া যায়নি। এদের পরিবর্তে নতুন প্রজন্মের ছেলে মেয়েদের নেয়া যেত।
সৌরভ গাঙ্গুলি ভারতের ক্রিকেট বোর্ডের দায়িত্ব নেয়ার পর ঘোষণা করেন আইপিএলের এবার কোন জাকজমকপূর্ণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে না। বরং সেই অর্থ ক্রিকেটারদের মান উন্নয়নে ব্যয় করা হবে। আর আমাদের এখানে তখন উল্টা দৃশ্য। ক্রিকেটারটা যখন বেতন ভাতার জন্য আন্দোলন করেন, তখন কর্মকর্তারা নানা ছুতানাতায় খরচের অজুহাত খুঁজে বেড়ান। আফসোস!




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : info@amadernotunshomoy.com