ভারতের বিহারে ধর্ষণে বাঁধা দেয়ায় নারীর গায়ে আগুন

আমাদের নতুন সময় : 10/12/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : এই ঘটনায় সেই নারীর শরীরের ৫০ শতাংশই পুড়ে গিয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন তিনি। শনিবার বিহারের মুজফফরপুরে এই ঘটনা ঘটেছে। অহিয়াপুর থানায় অভিযোগ করেছেন নির্যাতিতার মা। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। দ্য হিন্দু
অহিয়াপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিকাশ রাই জানিয়েছেন, শনিবার সন্ধ্যায় প্রায় ২৩ বছর বয়সী ওই নারী বাড়িতে একাই ছিলেন। সেই সুযোগে প্রতিবেশী ওই যুবক বাড়িতে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করতে চেষ্টা। নির্যাতিতা বাধা দিতে গেলে অভিযক্ত যুবক তার গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন। ওই তরুণীর মা স্থানীয় একটি প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে কর্মরত। ঘটনার সময় সেখানেই ছিলেন তিনি। প্রতিবেশীদের কাছ থেকে খবর পেয়ে দ্রুত বাড়ি ফিরে আসেন। তার পর মেয়েকে নিয়ে হাসপাতালে যান।
হায়দ্রাবাদ এবং উন্নাওয়ের ঘটনা নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে গোটা ভারত যখন উত্তাল, তার মধ্যে এই নিয়ে চতুর্থ বার এ ধরনের ঘটনা ঘটলো। এর আগে, গত শনিবার বক্সার এবং সমস্তিপুর থেকে দুই নারীর অগ্নিদগ্ধ দেহ উদ্ধার হয়। ধর্ষণের পর তাঁদের পুড়িয়ে মারা হয়েছে বলে সন্দেহ পুলিশের। এই অহিয়াপুর থানা এলাকাতেই গত শুক্রবার আট বছরের বালিকার অগ্নিদগ্ধ দেহ উদ্ধার হয়। তাকেও যৌন নির্যাতনের পর পুড়িয়ে মারা হয়। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : info@amadernotunshomoy.com