• প্রচ্ছদ » সাবলিড » অর্থমন্ত্রী বললেন , ই-পাসপোর্ট চালু না পাওয়া পর্যন্ত ২০ লাখ এমআরপি পাসপোর্ট কেনা হবে


অর্থমন্ত্রী বললেন , ই-পাসপোর্ট চালু না পাওয়া পর্যন্ত ২০ লাখ এমআরপি পাসপোর্ট কেনা হবে

আমাদের নতুন সময় : 13/12/2019

সাইদ রিপন : গতকাল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক প্রস্তাবটি অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের বিস্তারিত জানান অর্থমন্ত্রী। তিনি জানান,৫৩ কোটি ৪ লাখ টাকা ব্যয়ে এসব পাসপোর্ট সরবরাহ করবে ‘আইডি গ্লোবাল সলিউশন লিমিটেড’
অর্থমন্ত্রী বলেন, এখন যে পরিমাণ পাসপোর্টের চাহিদা রয়েছে, আমরা সেটা পূরণ করতে পারছি না। সারাবিশ্বে আমাদের যে অ্যাম্বাসি রয়েছে তাদের একটাই দাবি, তারা সময়মতো পাসপোর্ট পাচ্ছে না বা কম পাচ্ছে। আমরা যেভাবে হিসাব করেছিলাম, পাসপোর্ট যারা তৈরি করে তারা সেভাবে দিতে পারেনি। সেজন্যই আমাদের একটা গ্যাপ সৃষ্টি হয়েছে। আমরা দ্রুত চাহিদা মেটাতে পুরোনো প্রতিষ্ঠান আইডি গ্লোবাল সলিউশন লিমিটেডের কাছ থেকে ২০ লাখ মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) কিনছি। আমাদের পাসপোর্ট আরও প্রয়োজন। কিন্তু দ্রুত চাহিদা মেটাতে আমরা ২০ লাখ কিনছি। পাশাপাশি আমরা ই-পাসপোর্টে যাওয়ার চেষ্টায় রয়েছি।
এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, খুব অল্প সময়ের মধ্যেই প্রধানমন্ত্রী ই-পাসপোর্ট উদ্বোধন করবেন। কিন্তু স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বৈঠকে জানিয়েছে, ই-পাসপোর্ট চালু হতে আরও দু-তিন মাস সময় লাগবে। প্রথম দিকে দিনে ৫০০ ই-পাসপোর্ট দেয়া হবে, পরে এটি বাড়িয়ে দুই হাজার করে দেবে বলে সংশ্লিষ্ট কোম্পানি জানিয়েছে। মন্ত্রী বলেন, আমরা হিসাব করেছিলাম, একনেকে মূল যে প্রকল্প অনুমোদন হয়েছিল সেটি। কিন্তু পরে বিভিন্ন সময় এটার ভেরিয়েশন (মূল্য বেড়েছে) হয়েছে। মূল্যবৃদ্ধিসহ এখন যেটা হয়েছে সেটা হিসাব করতে হবে। কিন্তু আমরা ২৭ নভেম্বরের মিটিংয়ে ভুল করে একনেকে অনুমোদিত মূল্য হিসাব করেছিলাম। দাম বেশির বিষয়টি তারা ভুল বুঝিয়েছিল।
প্রসঙ্গত, এ ক্রয় প্রস্তাবটি গত ২৭ নভেম্বর ৬৭ শতাংশ বেশি দামে প্রস্তাব করা হয় বলে ফেরত দেয় কমিটি। কিন্তু সভায় আগের দাম ও আগের প্রতিষ্ঠানকেই সরবরাহ করার দায়িত্ব দেয়া হলো। সম্পাদনা : সমর চক্রবর্তী




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]