• প্রচ্ছদ » » ড. মীজানুর রহমান বললেন, পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়গুলো একাডেমিক কাউন্সিলে সান্ধকালীন কোর্স সংস্কারের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে


ড. মীজানুর রহমান বললেন, পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়গুলো একাডেমিক কাউন্সিলে সান্ধকালীন কোর্স সংস্কারের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে

আমাদের নতুন সময় : 14/12/2019

আমিরুল ইসলাম : পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়গুলোতে সান্ধকালীন কোর্স বন্ধের নির্দেশনা দিয়েছে বিশ^বিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন। সান্ধকালীন কোর্স বন্ধের বিকল্প বা সান্ধকালীন কোর্স গ্রহণের ক্ষেত্রে সংস্কার করা যায় কিনা জানতে চাইলে জগন্নাথ বিদ্যালয়ের উপচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেছেন, বিশ^বিদ্যায় মঞ্জুরী কমিশন পাবলিক বিশ^বিদ্যাগুলোতে সান্ধকালীন কোর্সগুলো বন্ধ করার পরামর্শ দিয়েছেন, তারা বন্ধ করতে বলেননি। এখন প্রত্যেক বিশ^বিদ্যালয় তাদের নিয়ম অনযায়ী ব্যবস্থা নিবে। প্রতিটি পাবলিক বিশ^বিদ্যালয় একাডেমিক কাউন্সিলে সান্ধকালীন কোর্স নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।
তিনি বলেন, জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ে নতুন করে ভর্তি পরীক্ষা নেয়া বন্ধ রেখেছি। সান্ধকালীন কোর্সে সংস্কারের সিদ্ধান্ত একাডেমিক কাউন্সিলে নেয়া হবে। একাডেমিক কাউন্সিলেই সান্ধকালীন কোর্সগুলো নিয়ে আলোচনা হবে। কিছু কিছু কোর্স আছে আগে থেকেই এগলো পার্ট টাইম বা বৈকালিক প্রোগ্রাম। যেমন; জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ের ল্যাঙ্গুয়েজ ইনস্টিটিউটে সার্টিফিকেট কোর্স আছে। এক্সিকিউটিব এমবিএ ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ে ১৯৬৭ সাল থেকে ছিলো। এগুলো নিয়ে নতুন করে চিন্তাভাবনা করা যাবে একাডেমি কাউন্সিলের সময়। এখন শুধু নতুন করে ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে। যেগুলো চালু আছে, আগষ্ট থেকে ভর্তি হয়েছে শিক্ষার্থীরা, এগুলো শেষ না হওয়া পর্যন্ত চলবে। প্রতিটি পাবলিক বিশ^বিদ্যালয় একাডেমিক কাউন্সিলে সান্ধকালীন কোর্স নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। বিশ^বিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন একটা পরামর্শ দিয়েছে, প্রতিটি বিশ^বিদ্যালয় তাদের নিয়ম ও আইন অনুযায়ী সান্ধকালীন কোর্সের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে এবং ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। বিশ^বিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন সান্ধকালীন কোর্সের কার্যক্রমে সংস্কার করার ক্ষমতা রাখে না এবং তাদের সে সক্ষমতাও নেই। প্রতিটি বিশ^বিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিল এটা করবে। বিশ^বিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের এতো বেশি জনবলও নেই, প্রতি বিশ^বিদ্যালয় একডেমিক কাউন্সিলের মাধ্যমেই কাজটি করবে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]