সংগ্রাম সম্পাদক আসাদ তিনদিনের রিমান্ডে

আমাদের নতুন সময় : 15/12/2019

 

মাসুদ আলম ও মামুন খান : রাজধানীর হাতিরঝিল থানার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদক আবুল আসাদকে তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। শনিবার তাকে পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে ঢাকার সিএমএম আদালতে হাজির করেন তদন্ত কর্মকর্তা। শুনানি শেষে ঢাকা মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশিদ এ আদেশ দেন।
শুক্রবার গভীর রাতে হাতিরঝিল থানা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোহাম্মদ আফজাল বাদী হয়ে মামলাটি করেন। এতে সংগ্রামের সম্পাদকসহ তিনজনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা করা হয়।
অন্য দুই আসামি হলেন- প্রধান প্রতিবেদক রুহুল আমিন গাজী এবং বার্তা সম্পাদক সাদাত হোসেন। এছাড়া অজ্ঞাতনামা আরও ৬-৭ জনকে আসামি করা হয়েছে। ওই দিন রাতে মগবাজার ওয়ারলেস এলাকায় পত্রিকাটির কার্যালয়ের নিচ থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, বাদী দীর্ঘদিন ধরে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডারের দায়িত্ব পালন করছেন। গত ১২ ডিসেম্বর ‘শহীদ আবদুল কাদের মোল্লার ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী আজ’ উল্লেখ করে আসামির সম্পাদিত দৈনিক সংগ্রাম পত্রিকা প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। প্রতিবেদনটিতে বিভিন্ন ধরনের মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য উল্লেখ ছিলো। রাজাকার আব্দুল কাদের মোল্লার মানবতা বিরোধী অপরাধের মামলায় ২০১৩ সালের ১২ ডিসেম্বর তার মৃত্যুদ- কার্যকর হয়। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তি এখনো সরকারের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ঘোলাটে করার জন্য এই ধরনের উসকানিমূলক সংবাদ পরিবেশন করেন আসাদসহ অন্য আসামিরা। সরকারকে বেকায়দায় ফেলার জন্য আসামিরা সর্বদা সচেষ্ট রয়েছেন। আসাদসহ অন্য আসামিরা রাষ্ট্রদ্রোহী সংঘবদ্ধচক্রের সহায়তায় এই ধরনের উসকানিমূলক তথ্য প্রচারসহ দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও সংবিধানকে অস্বীকার করেন। এ ঘটনার ইন্ধনদাতা এবং পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তার করার জন্য এই আসামিকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা জরুরি।
হাতিরঝিল থানার ওসি আব্দুর রশিদ বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পাওয়া গেছে। অফিসটিতে জামায়াত-শিবিরের বৈঠক হতো এমন তথ্যও পাওয়া গেছে। সম্পাদনা : ভিক্টর কে. রোজারিও




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]