• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » সুন্দরবন পরিদর্শন চলে প্যাকেজে স্পট ভিজিটের নামে দালালদের প্রতারণা


সুন্দরবন পরিদর্শন চলে প্যাকেজে স্পট ভিজিটের নামে দালালদের প্রতারণা

আমাদের নতুন সময় : 14/01/2020

 

ইসমাঈল ইমু : ২] বছরের ৫ মাস সুন্দরবন পরিদর্শনে যান দেশি-বিদেশি পর্যটকরা। দুই থেকে তিনদিনের প্যাকেজে বেশিরভাগ দর্শনার্থীরা মোংলা থেকে সুন্দরবনের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। আর এসব প্যাকেজ তৈরি করে বনবিভাগের অনুমোদন, বনরক্ষী, ছোটবড় জাহাজ ও ট্রলার জোগাড়ের কাজ করেন স্থানীয় দালালরা।
৩] প্যাকেজের আওতায় যাওয়া দর্শনার্থীদের সঙ্গে প্রায়ই প্রতারণা করে থাকে দালালরা। নির্দিষ্ট কয়েকটি স্পট দেখানোর কথা বলা হলেও দুএকটি স্পট ভিজিট করিয়ে সময়ের দোহাই দিয়ে দ্রুত শেষ করে প্যাকেজ।
৪] গত শনিবার সুন্দরবন পরিদর্শনে তিনদিনের প্যাকেজে যাওয়া ১৫ জনের একটি গ্রুপের লোকজন জানান, তাদের বলা হয়েছে করমজল (কুমিরের সাথে দেখা), হাড়বাড়িয়া (ইকো পার্ক), তিন কোনা দ্বীপ, হিরণ পয়েন্ট (নীল কমল), দুবলার চর (আলোর কোল, সাগরে পুণ্যস্নান), কটকা (ওয়াচ টাওয়ার), জামতলা (সী-বিচ), টাইগার পয়েন্ট ও কচি খালী (সী-বিচ) পরিদর্শন করানো হবে।
৫] প্রথমদিন হাড়হাড়িয়া ইকোপার্ক পরিদর্শন করিয়ে দিন শেষ হয়ে যায়। পরদিন কটকা ওয়াচ টাওয়ার পরিদর্শনে চলে যায় একবেলা। মধ্যাহ্নভোজ শেষে তাদের কচিখালি স্পট ও করমজল স্পটে নিয়ে যাবার কথা। কিন্তু কচিখালি স্পটে যেতেই সন্ধ্যা হয়ে যাওয়ায় সবাই জাহাজে অবস্থান নেন। পরদিন ভোরে জাহাজ ছাড়লে কচিখালি স্পট পরিদর্শন শেষে জাহাজে মধ্যাহ্ন ভোজ শেষে আবারও রওয়ানা। কিন্তু সন্ধ্যা নেমে এলে মোংলার দিকে চলে যায় জাহাজ। শেষ হয়ে যায় প্যাকেজ। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]