• প্রচ্ছদ » » আমরা দিল্লির সঙ্গে থাকবো তবে আমাদের শর্তে


আমরা দিল্লির সঙ্গে থাকবো তবে আমাদের শর্তে

আমাদের নতুন সময় : 15/01/2020

ম. ইনামুল হক

‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা ভারতের দান’Ñ এই কথা বলে দিল্লি বাংলাদেশের উপর ক‚টনৈতিক শর্ত চাপায়, বিনা শুল্কে ট্রানজিট নেয়, শিল্প দখল করে রেমিট্যান্স হাতায়, এরপর বাংলার মানুষদের হেয় কষ্ট দেয়া ও হেয় করার লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক নদীগুলোর জল প্রবাহে বাধা দেয়, সমাজ সংস্কৃতির উপর হিন্দি চাপায়, সীমান্তে নিরস্ত্র মানুষদের গুলি করে মারে। মুসলিম বাঙালির ‘পাকিস্তানে’র প্রতি মোহ ১৯৭১ সালে ঘুচেছে, হিন্দু বাঙালির মহান ‘হিন্দুস্তান’ গড়ার মোহ ঘুচতে চলেছে। ভারতের হিন্দি সাম্রাজ্যবাদ দিল্লিকেন্দ্রিক মোগলদের উত্তরসূরি হিন্দুরাজ সৃষ্টির একটি স্বপ্ন। তাদের স্বপ্নের উন্মাদনা সারা বাংলাকে ছারখার করে দিয়েছে। আজ থেকে ৪০০০ বছর পূর্ব থেকে ১০০০ বছর পূর্ব পর্যন্ত বাংলার নিজস্ব দেশ ছিলো, নিজস্ব সাম্রাজ্য ছিলো, হিন্দুস্তান বলে কিছু ছিলো না। তারপর ৫০০ বছর মুসলমানদের তৈরি হিন্দুস্তান ও বাংলা আলাদা দেশ। তারপর ২০০ বছর বঙ্গাল হিন্দুস্তানের উপনিবেশ। তারপর ২০০ বছর বাংলা ব্রিটিশ উপনিবেশ। বাংলা কীভাবে হিন্দিস্তান বা হিন্দুস্তানের অংশ হয়? ১৯০৫ সালের আগের নি¤œবঙ্গই বৃহত্তর বাংলা। এর আগে বেঙ্গল প্রেসিডেন্সির পাঞ্জাব, রাজস্থান, কাশ্মীর, উত্তর ও মধ্যপ্রদেশ নিয়ে উপরবঙ্গই হিন্দুস্থান। বর্তমানের পাকিস্তান এলাকাও হিন্দুস্তান বা সিন্ধু নদের অববাহিকা। উপরবঙ্গের উত্তর ও মধ্যপ্রদেশ আসলে গঙ্গাস্থান, কিন্তু এই এলাকার মানুষ মোগলদের ঐতিহ্য ধরে দিল্লিকেন্দ্রিক হিন্দুস্থান হতে চায় ও বাংলা শাসন করে এর সম্পদের উপর ভাগ বসাতে চায়। হিন্দুস্থানিদের বাংলা দখল সম্ভব হয়েছিলো বঙ্গীয় সমতলের মানুষদের মধ্যে হিন্দু-মুসলিম, ঘটি-বাঙাল, বাঙালি-বিহারী ও বাঙালি- অহমিয়া বিভেদ সৃষ্টি করে। ১৯১১ সালে বিহার বলে যে প্রদেশ হয়, তার মধ্যে বিহারী বলে কোনো ভাষা ছিলো না, জাতি ছিলো না। ছিলো কুড়মালী, সানতালী, ভোজপুরী, মৈথিলী ও বাংলা ভাষার মানুষের বাস। ১৯১১ সালে আসাম বলে যে প্রদেশ হয়, তাতে অহমিয়া বলে দাবিদার মানুষের সংখ্যা ছিলো ১০ শতাংশ মাত্র। বাকিরা ছিলো বাংলা, বোডো, দিমাসা ও অন্যান্য নানা জাতির বাস। স্বাধীন ভারতে বিহার, বাংলা ও আসামকে দিল্লি সাম্রাজ্যের অধীনে রাখার লক্ষ্যে সৃষ্টি করা হয় ‘মহাভারত’ গড়ার স্বপ্ন। বাংলার ওই সময়ের অগ্রণী মানুষেরা এই ফাঁদে পড়ে নিজেদের হিন্দুস্থানি ভাবতে থাকে। বাংলা বা বৃহত্তর বাংলা হিন্দুস্থান নয়। মোগল বঙ্গাল হিন্দুস্তানের উপনিবেশ ছিলো, বর্তমান বাংলা বা বাংলাদেশ নয়। বাংলা বিহার আসাম নিয়ে যে বৃহত্তর বাংলা বা পূর্বদেশ তাও নয়। আমরা দিল্লির পাশে উপনিবেশ নয়, সমতার ভিত্তিতে থাকবো। বৃহত্তর বাংলা তথা পূর্বদেশের মানুষ আবার জাগছে। বাংলাদেশ স্বাধীন রাষ্ট্র। পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খÐ, বিহার, আসাম ও পূর্বদেশের অন্যান্য রাজ্যের মানুষও তাদের প্রত্যেকের ভাষা, ধর্ম ও সংস্কৃতি ও প্রাকৃতিক সম্পদের উপর ঐতিহাসিক অধিকার নিয়ে আত্মমর্যাদায় বলীয়ান হয়ে থাকবে। দিল্লির অধীনস্ত হয়ে নয়। লেখখ : আহŸায়ক, সর্বজন বিপ্লবী দল




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]