• প্রচ্ছদ » » কেন উৎসব ¤øান হচ্ছে ভোটের দিন?


কেন উৎসব ¤øান হচ্ছে ভোটের দিন?

আমাদের নতুন সময় : 16/01/2020

সাইদুর রহমান

ভোটের দিন প্রতিটি ভোটকক্ষে নির্বাচনে প্রতিদ্ব›দ্বী সব প্রার্থীর এজেন্ট থাকলে সমস্যা কোথায়? কেন কেন্দ্র এবং ভোটকক্ষ থেকে এজেন্টদের বের করে দেয়া হচ্ছে। একটি ঘটনারও কী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আপনারা ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট ভোটগ্রহণ করছেন অথচ এজেন্টদের নিরাপত্তা দিতে পারছেন তা কেমন হবে? তাতে তো আপনার যন্ত্রের প্রতি কারও বিশ্বাস স্থাপন হবে না। নির্বাচনের নতুন পদ্ধতি অনুযায়ী প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে ভোটের আগ পর্যন্ত সমানতালে সব প্রার্থী প্রচারণা চালাচ্ছেন। উৎসবের পরিবেশ তৈরি হচ্ছে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী এলাকায়। কিন্তু ভোটের দিন সকাল ৯টা থেকে ৫টার মধ্যে সেই উৎসব ¤øান হয়ে যাচ্ছে। প্রশ্ন উঠছে, হঠাৎ উৎসব ক্ষণিকের সময়ে ভোটকক্ষ দখলের মহড়ায় রূপ নিচ্ছে। সেই মহড়ার সঙ্গী কিন্তু ভোটের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবার। ভোটের নামে এতো আয়োজনের দরকার কী? কোটি কোটি টাকা ভোটের পেছনে ব্যয় না করে দারিদ্র্য দূরীকরণে বা নগরীর বস্তিবাসীদের জন্য কিছু করলে বোধহয় ভালো হতো। যদি ভোট চান তাহলে ভোটের মতো করুন।
এর জন্য সবার আগে দরকার ভোটকক্ষের সুরক্ষা। ভোটকক্ষে নিশ্চিত করতে সব প্রার্থীর এজেন্টদের উপস্থিতি। থাকবে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও ভোটের দায়িত্বে থাকাদের দলীয় আচরণ পরিহার করে পেশাদারিত্বের পরিচয় নিশ্চিত করতে হবে। নির্বাচন কমিশনকে হতে হবে শতভাগ সক্রিয়, দলীয় দৃষ্টিভঙ্গিমুক্ত। থাকতে হবে সুষ্ঠু নির্বাচন করার মানসিকতা। সরকারকে থাকতে হবে প্রভাবমুক্ত। দেখবেন, সুষ্ঠু ভোট নিশ্চিত। জয়-পরাজয়ের চেয়ে সবার কাছে মুখ্য হওয়া উচিত সুষ্ঠু ভোট। মানুষের ন্যূনতম ভোটদানের অধিকার নিশ্চিত হলে দেশে সুশাসন নিশ্চিত হবে। আমরা যতোই উন্নয়ন করি না কেন, মানুষের ছোট ছোট অধিকার হরণ করে বেশিদূর এগোনো কঠিন। উন্নয়নের পাশাপাশি দরকার সুশাসন, নাগরিকের অধিকার এবং দলীয় রাজনীতিমুক্ত রাষ্ট্র ব্যবস্থা। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]