• প্রচ্ছদ » সাবলিড » বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে একটুকরা চাঁদের মাটি উপহার দিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নিক্সন, তোশাখানা যাদুঘরে ছোট কাঁচের বলের মধ্যে এই টুকরাটি রয়েছে, ১৯৭৩ সালের কোন এক সময় বঙ্গবন্ধুকে এই উপহারটি দেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট, তোশাখানার একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন এটিই বাংলাদেশে একমাত্র চাঁদের মাটি


বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে একটুকরা চাঁদের মাটি উপহার দিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নিক্সন, তোশাখানা যাদুঘরে ছোট কাঁচের বলের মধ্যে এই টুকরাটি রয়েছে, ১৯৭৩ সালের কোন এক সময় বঙ্গবন্ধুকে এই উপহারটি দেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট, তোশাখানার একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন এটিই বাংলাদেশে একমাত্র চাঁদের মাটি

আমাদের নতুন সময় : 16/01/2020

বিশ্বজিৎ দত্ত : ২] এ ছাড়াও চট্ট্রগ্রামের মলিন চৌধুরা নামের এক ব্যাক্তি বঙ্গবন্ধুকে উপহার দেন বিশাল এক অজগর সাপের চামড়া। চট্টগ্রামের রাওজানবাসী উপহার দেন রূপার নৌকা। রয়েছে অসংখ্য রূপার ও পিতলের নৌকা দেশের বিভিন্ন এলাকা মানুষ বঙ্গবন্ধুকে উপহার দিয়েছেন।
৩] মিশরের প্রেসিডেন্ট নাসের বঙ্গবন্ধুকে উপহার দেন চাবিটি রূপার চাবি। নিচে লিখা রয়েছে এক মহান নেতাকে মিশরের চাবি তুলে দিলাম। ১৯৭৩ সালে ভারতের তৎকালীন রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধুকে উপহার দেন একটি রূপার তৈরী প্যাগোডা।
৪] তোশাখানা জাদুঘরের ভিতরে ৪ তলা উন্মুক্ত গ্যালারি বানানো হয়েছে। গ্যালারির উপরে রয়েছে কারুকাজ করা কাঁচের চুঁড়া। নিচতলায় রয়েছে বাংলাদেশের সকল প্রেসিডেন্টের উপহার সামগ্রী। এরপরে ২য় ও ৩য় তলায় রয়েছে বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা শেখ হাসিনার উপহার সামগ্রী। আর ভিতরেই গ্যালারির মধ্যেই রয়েছে বঙ্গবন্ধুর বিশাল ভাস্কর্য। ঠিক সিঁড়ি নয় প্যাঁচানো রাস্তা ।
৫] বঙ্গবন্ধুর অসংখ্য ফটোগ্রাফ ও চিত্র রয়েছে। প্রতিটি ফ্লোরে। রয়েছে বঙ্গবন্ধুকে লিখা নানা দেশের রাষ্ট্রপ্রধান ও প্রধানমন্ত্রীর পত্র। রয়েছে বঙ্গবন্ধুর পারিবারিক ছবি। বঙ্গবন্ধুর ব্যবহ্রত চশমা ও রুমাল।
৬] জাদুঘরের একজন কর্মকর্তা জানান,বঙ্গবন্ধুর সবগুলো উপহার সামগ্রী এখনো প্রদর্শন করা হয়নি। অনেক উপহার খুবই মূল্যবান। এগুলো বাক্সবন্দি করে রাখা হয়েছে। এগুলোর নিরাপত্তা নিশ্চিতকরে প্রদর্শন করা হবে। এ ছাড়াও অনেকগুলো উপহার জাতীয় জাদুঘরকেও দেয়া হয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : info@amadernotunshomoy.com