আপনাকে আমি ভুলবো না

আমাদের নতুন সময় : 21/01/2020

মাসুদ কামাল : টানা দশ বছর কাজ করার পর বাংলাভিশন কর্তৃপক্ষ এক সকালে যখন আমাকে চাকরিচ্যুতির চিঠিটি ধরিয়ে দিলো, আমি তেমন একটা অবাক হইনি। অবাক হইনি, তবে অপমানিতবোধ করেছি। তারা আমাকে বললেই পারতো যে, তাদের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো যাচ্ছে না, বেতন দিতে কষ্ট হচ্ছে, তাই বেশি বেতন পায় এমন কিছু লোককে ছাঁটাই করা দরকার। এমন জানালে আমি নিজেই পদত্যাগ করতাম। কিন্তু তারা সেটা করেনি, এমনকি কেন এই টারমিনেশনÑ চিঠিতে তার কারণ পর্যন্ত উল্লেখ করেনি। এরপরও আমি বলছি না যে, তারা বেআইনি কিছু করেছে। কিন্তু দশটি বছর যে লোক আপনার প্রতিষ্ঠানে শ্রম দিলো, বিদায়ের সময় সে নিশ্চয়ই ন্যূনতম সম্মানটুকু আশা করতে পারে। আচ্ছা তারা কি জেনেবুঝেই আমাকে অপমান করতে চেয়েছে? আমার কিন্তু তা মনে হয় না। আমার তো মনে হয়, তারা আসলে বিষয়টি ঠিকমতো বুঝতেই পারেনি। কিসে একজন সাংবাদিক অপমানিতবোধ করতে পারে, সেটা উপলব্ধির ক্ষমতাই হয়তো তাদের নেই। মালিক পক্ষের লোকেরা এই পেশার লোক নয় বলে তারা হয়তো সাংবাদিকদের সেন্টিমেন্টটা সেভাবে বুঝতে পারেন না। হয়তো এসব কারণেই ভেবেছিলাম, অনেক তো হলো আর চাকরিই করবো না। এবার বরং নিজের মতো করে স্বাধীনভাবে কিছু করি। বাংলাভিশনের সঙ্গে সম্পর্কোচ্ছেদের খবরটা সাধারণ্যে প্রথম প্রকাশ করলাম আমি ফেসবুকের মাধ্যমে। এরপর প্রথম ফোনটা পেলাম নাঈম ভাইয়ের কাছ থেকে। ফেসবুকে স্ট্যাটাসটা প্রকাশের অল্প সময় পরই। নাঈমুল ইসলাম খান একসঙ্গে তিনটি দৈনিক পত্রিকা বের করেন। তিন দশক আগে যখন আমি একজন নবিশ সাংবাদকর্মী, তখন থেকেই তিনি সম্পাদক। এই মুহূর্তে দেশে তার চেয়ে কোনো সিনিয়র সম্পাদক আছেন কিনা, আমার জানা নেই। সেই নাঈম ভাইয়ের ফোন পেয়ে একটু অবাকই হলাম। একটু রসিকতা করেই বললাম, ভাই চাকরি দেবেন নাকি? তার জবাব, ‘আপনাকে আমি চাকরি তো দিতে পারবো না, তবে সম্মানটা দিতে চেষ্টা করবো’। এরপর আরও অনেক শুভানুধ্যায়ীর সঙ্গে কথা হয়েছে, অনেকেই ফোন করেছেন। কিছু চাকরির অফারও পেয়েছি। সমৃদ্ধ বেতন-ভাতার কথাও বলেছেন অনেকে। কিন্তু ওই যে সম্মান, সেটার কথা বলেননি কেউই। আচ্ছা, সম্মানের কি কোনো অর্থমূল্য হয়? এর জন্য কি হয় বাড়তি কোনো ব্যয়? তাহলে এটা দিতেই এতো কার্পণ্য কেন? নাঈম ভাই, আপনাকে আমি ভুলবো না, আপনি আমাকে সম্মান দিতে চেয়েছেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]