• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » ]কক্সবাজারে পর্যটন শিল্পে করোনার প্রভাব, ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা


]কক্সবাজারে পর্যটন শিল্পে করোনার প্রভাব, ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা

আমাদের নতুন সময় : 20/03/2020

আমান উল্লাহ : [২] অন্যান্য বছর এ সময়ে পর্যটকে ভরপুর থাকলেও, এবারের চিত্র ভিন্ন।
[৩] বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজারে এখন চলছে পর্যটনের ভরা মৌসুম। করোনা প্রতিরোধে আবাসিক প্রতিষ্ঠানগুলো নানা উদ্যোগ গ্রহণ করা হলেও, করোনাভাইরাসের প্রভাবে আশানুরূপ পর্যটক আসছে না এখন।
[৪] গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে সৈকতে গিয়ে দেখা যায়, সৈকতের লাবণী, সুগন্ধা, কলাতলী পয়েন্টে স্বল্পসংখ্যক পর্যটক দেখা গেলেও সী-গাল, শৈবাল, মাদ্রাসা ও ডায়াবেটিস পয়েন্টে পর্যটন শূন্য। সৈকতের বালিয়াড়িতে খালি পড়ে আছে কিটকটগুলো। হকার ও ফটোগ্রাফাররা বেকার সময় পার করছেন।
[৫] সী-গাল পয়েন্টের কিটকট ব্যবসায়ী সুমন মুখার্জি বলেন, চলতি মাস থেকে সৈকতে পর্যটক আসা কমে গেছে। যেখানে এই পয়েন্টে ২০টি কিটকট (ছাতা) এ পর্যটকদের বসার জন্য জায়গা দিতে পারতাম না। এখন এই কিটকটগুলো খালি পড়ে আছে, ব্যবসাও হচ্ছে না।
[৬] তারকামানের হোটেল ওশ্যান প্যারাডাইজের ব্যবস্থাপক (অর্থ) জাহাঙ্গীর আলম হেলাল বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে হোটেল কক্ষের বুকিং এখন তুলনামূলক অনেক কমে গেছে। পর্যটন মৌসুমের এ সময়ে গত বছরগুলোর চেয়ে কক্সবাজারে এ বছর পর্যটকের আনাগোনা কম রয়েছে। এতে আশানুরূপ ব্যবসার ক্ষেত্রে মন্দার প্রভাব পড়েছে। ইতিমধ্যে বেড়াতে আসতে ইচ্ছুক অনেক পর্যটক হোটেল কক্ষের অগ্রিম বুকিং বাতিল করেছেন। সম্পাদনা : মুরাদ হাসান, ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : info@amadernotunshomoy.com