‘রিকশার জমা অর্ধেক করেন, আয় ইনকাম বাড়লে পরে বাড়াইয়া দিমু’

আমাদের নতুন সময় : 21/03/2020

মাহমুদুল আলম: ২] ‘যাত্রী নাই। সব দ্যাশে গ্যাছে। সারাদিন যা কামাই করি, তা দিয়া জমার টাকা শোধ করলে সংসার চলবো ক্যামনে? বউ বাসা-বাইত্তে কাম করতো, এখন তারও কাম নাই। এক বাসার লোকজন গ্রামে চইলা গেছে। আরেক বাসা থেকে করোনার ভয়ে মানা কইরা দিছে। তাগো বাসায় বাইরের লোক ঢুকলে নাকি লগে কইরা করোনা ঢুকবো।’
৩] গতকাল একথা বলে রিক্সামালিকের কাছে রিক্সার দৈনিক ভাড়া কমানোর আকুতি করছিলেন এক রিক্সাচালক। তেজগাঁয়ের এক রিক্সা গ্যারেজে কথা বলছিলেন তারা।
৪] মোটরচালিত রিক্সার চালক-মালিক আবু ইউসুফ বললেন, যাত্রী কমে গেছে ঠিক। ড্রাইভারও কমে গেছে। অনেকে চলে গেছে। ড্রাইভারদের আয়-ইনকাম খুব বেশি কমছে, তা কিন্তু ঠিক না। অনেক ড্রাইভার ময়মনসিংহ থেকে ভোরের ট্রেনে ঢাকায় এসে রিক্সা ভাড়া নেন। রাতের ট্রেনে ফিরে যান। তারা ঢাকায় আসছেন না।
৫] বেশ কিছু রিক্সার মালিক সামছুল আলম বললেন, ড্রাইভাররা বেশিরভাগই দেশে চলে গেছে। যদি করোনার কারণে পুলিশ ফুটপাতে থাকতে না দেয়, গাড়িঘোড়াও বন্ধ হয়ে যায়, তাইলে তো দেশেও যেতে পারবে না। জমা অর্ধেকে নামানোর দাবির বিষয়ে তিনি বলেন, জমা কীভাবে কমাবো? আমার ইনকামই কমে গেছে। ৬] মোটরচালিত রিক্সার জন্য মালিককে প্রতিদিন ৩০০ টাকা জমা দিতে হয়। সাধারণ রিক্সার (পায়ে চালানো) ক্ষেত্রে সারাদিনের জমা ১০০ টাকা ও আধাবেলার জমা ৬০ টাকা। সম্পাদনা: হাসান হাফিজ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]