করোনা ভাইরাসের ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব কী?

আমাদের নতুন সময় : 24/03/2020

মোহাম্মদ আলী বোখারী, টরন্টো থেকে: ২]বিশ্বব্যাপী সাম্প্রতিক করোনা ভাইরাসের বিস্তারে ‘কোভিড-১৯’ রোগের প্রার্দুভাব সর্বত্র বিদ্যমান। এতে অবিরত হাত ধোয়া, করমর্দন না করা ও ‘সোশ্যাল ডিসটেন্সিং’ বা পরস্পরের মাঝে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনাটি একটি নিয়মে পরিণত হয়েছে।

৩]যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র বা সংক্ষেপে ‘সিডিসি’ ওই সামাজিক দূরত্ব বোঝাতে বলেছে: ‘কোনো প্রকার গণজমায়েতে যোগ না দেয়া ও ব্যাপক উপস্থিতি পরিহার এবং সম্ভব হলে একে অপর থেকে প্রায় ৬ ফুট বা ২ মিটার দূরত্ব বজায় রাখা।’ কানাডার সরকারি স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, সমাজে মানুষের মাঝে ‘দূরত্ব বজায় রাখা’ ও ‘ব্যক্তিগত পর্যায়ে স্বেচ্ছায় আলাদা হওয়া’র পদক্ষেপ গ্রহণ, যাতে মানুষ ভিড়ে সমবেত না হয়।

৪]কানাডার প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. থেরেসা টেমের অভিমত, মানুষ যাতে সফরকালীন সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখে। কানাডার সরকারি স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শটি হচ্ছে, দেশের জনগোষ্ঠী যেন নৌবিহারের মতো পারস্পরিক জটলায় না জড়ায়, যেখানে সহজেই জীবাণু সংক্রমণের পরিবেশ দ্রুত তৈরি হয়।

৫]‘বাস্তবিক অর্থে জীবাণু সংক্রমণের পরিবেশ তৈরি হয় এমন সমাবেশের পরিস্থিতি প্রতিরোধ করাই হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা’, জানিয়েছেন কানাডার কুইন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের ছোঁয়াচে রোগ বিভাগের প্রধান ডা. জেরাল্ড ইভান্স। সম্পাদনা: হাসান হাফিজ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]