• প্রচ্ছদ » » বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নতি হয়েছে ব্যাপক, স্বাধীন চিন্তার দিক থেকে অনেক পিছিয়েও গেছি, বললেন খুশি কবির


বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নতি হয়েছে ব্যাপক, স্বাধীন চিন্তার দিক থেকে অনেক পিছিয়েও গেছি, বললেন খুশি কবির

আমাদের নতুন সময় : 26/03/2020

মাসুদ হাসান : [১] মানবাধিকার কর্মী খুশি কবির মনে করেন, বঙ্গবন্ধুর শতবর্ষপূর্তিতে যেভাবে তার ছবি টানিয়ে দেখানো হচ্ছে তার চেয়েও বেশি গুরুত্ব দিয়ে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে। বঙ্গবন্ধু যে আদর্শে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন আমাদের উচিত তার আদর্শকে প্রতিষ্ঠা করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী, কারাগারের রোজনামচা সবার পড়া উচিত। এগুলোর মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর আসল চিন্তা, আদর্শ জানা যাবে। তার আদর্শকে বাঁচিয়ে রাখলেই আমরা বঙ্গবন্ধুকে সম্মানের সঙ্গে মনে রাখতে সক্ষম হবো।
[২] তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার পর পর বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নতি হয়েছে ব্যাপক, তার সঙ্গে বলতে হয়, স্বাধীন চিন্তার দিক থেকে আমরা অনেক পিছিয়েও গেছি। পাকিস্তান আমলে আমাদের যেভাবে দমিয়ে রাখা হয়েছিলো সেখান থেকে আমরা বেরিয়ে গেছি যুদ্ধের মাধ্যমে দেশ স্বাধীন করে। কিন্তু স্বাধীনতার সময় বঙ্গবন্ধুর যে মূল নীতি ছিলো সেটা থেকে আমরা দূরে সরে যাচ্ছি। যেমন ধর্মনিরপেক্ষতা ফাটল লক্ষণীয়, নয় মাস যুদ্ধকালে বা একাত্তরের যে চেতনা ছিলো এবং তারপরও মানুষের মধ্যে কোনো ধরনের সাম্প্রদায়িকতা ছিলো না। কিন্তু এখন তা মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। তখন ধর্ম ছিলো ব্যক্তিগত। সবার সামাজিকতা ছিলো এক। এক ধর্ম অন্য ধর্মকে আঘাত করা হতো না। তখন ধর্ম নিয়ে দাঙ্গাহাঙ্গামা ছিলো না। ধর্মনিরপেক্ষতা মানে সব ধর্মকে রাষ্ট্রীয়ভাবে সমান অধিকার দেওয়া।
[৪] সমাজতন্ত্র মানেই সুশাসনের মাত্রা কমিয়ে দেওয়া, ধনী-গরিব বৈষম্য কমিয়ে সবাইকে এক শ্রেণিতে দেখা। কিন্তু বর্তমান সময়ে দেখা যাচ্ছে ধনীর সংখ্যা বাড়ছে, গরিব-ধনীর মধ্যে ব্যবধানের জায়গাও অনেক বেড়ে গেছে। [৫] যুদ্ধের সময় বাঙালি আদিবাসিরাও মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন, বিশেষ করে পাবত্য চট্টগ্রামের আদিবাসীদের অবদানও ছিলো। তাদের বিষয়টি আমাদের সামনে আনা উচিত। পাকিস্তানিরা আমাদের যে অত্যাচার করেছিলো, আমরা যেন তাদের উপর না করি।
বাঙালি জাতীয়তাবোধ মানে আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতি, আমাদের নিজস্ব ভাষা। আমাদের ভাষার আরও চর্চা করা প্রয়োজন। ভাষার উপর মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠা করা। আমাদের মাঝে যেকোনো সংস্কৃতির বিকাশ ঘটুক, আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতি যেন হারিয়ে না যায়। সেটার উপর নজর রাখতে হবে। আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতিকে ভুলে যেন না যাই, আমি যদি আমার অবস্থান ভুলে যাই তার মানে আমার অতীত, আমার ইতিহাস আমি বিক্রি করে দিচ্ছি। সেটা যেন না হয়। [৬] দুঃখের বিষয়, আমাদের দেশে নারীর উপর নির্মম নির্যাতন চালানো হয়। তখন বোঝা যায় আমরা আমাদের জায়গা থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাচ্ছি। ৪৯ বছর পর এসে এটা কাম্য নয়। [৭] এটা থেকেই বোঝা যায় গণতন্ত্রের ঘাটতি আছে, একজন সাংবাদিক তার দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে উধাও হয়ে যান, সত্য প্রকাশে বাধা পায় এমন ঘটনা গণন্ত্রের অন্তরায় প্রকাশ পায়। [৮] বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের গণতন্ত্র এটা নয়। দেশে মূল্যবোধের অবক্ষয় লক্ষণীয়, যে কারও পৃষ্ঠপোষকতায় খুব সহজেই স¤্রাট বা পাপিয়ারা তৈরি হচ্ছে, এটা ভালো সংকেত নয় গণতন্ত্রের জন্য।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]