• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]জরুরি প্রয়োজনে বাহিরে বের হওয়া লোকজনকে নির্যাতন করা ফৌজদারি অপরাধ, আইনজ্ঞদের অভিমত


[১]জরুরি প্রয়োজনে বাহিরে বের হওয়া লোকজনকে নির্যাতন করা ফৌজদারি অপরাধ, আইনজ্ঞদের অভিমত

আমাদের নতুন সময় : 29/03/2020

এস এম নূর মোহাম্মদ : [২] করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে ১০দিনের জন্যে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। বলা হয়েছে বিনা প্রয়োজনে বাহিরে বের না হতে। কিন্তু আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কিছু অতিউৎসাহি সদস্য জনসাধারণকে বাহিরে পাওয়া মাত্রই লাঠিপেটা ও কান ধরে ওঠবস করাচ্ছেন।
[৪] এ সম্পর্কে জানতে চাইলে সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খুরশিদ আলম খান বলেন, প্রয়োজনে কেউ বাহিরে গেলে তাকে বুঝিয়ে দ্রুত বাড়ি পাঠানো যেতে পারে। কিন্তু কান ধরে দাঁড় করানো বা লাঠি-পেটা বাড়াবাড়ি। এসব পরিহার করা উচিৎ।
[৫] ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়–য়া বলেন, কাউকে অযথা লাঠিপেটা বা কান ধরে ওঠবস করানো নির্যাতন এবং হেফাজতে মৃত্যু (নিবারণ) আইন-২০১৩ অনুযায়ী ফৌজদারি অপরাধ। এ আইন অনুযায়ী নির্যাতনকারীদের বিরুদ্ধে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলা করা যাবে।
[৬] ব্যারিস্টার আব্দুল্লাহ মাহমুদ বাশার বলেন, সংবিধানের ৩৫ (৫) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী কাউকে বেদনাদায়ক বা লাঞ্ছনাকর সাজা দেয়া যাবে না। লাঠি পেটা, কান ধরে ওঠবস করানো বা কোন ধরনের বাড়াবাড়ি ক্ষমতা বহির্ভুত।
[৭] ব্যারিস্টার হুমায়ন কবির পল্লব বলেন, অতিউৎসাহি কিছু কর্মকর্তা কাউকে আইনের আওতায় না এনে নিষ্ঠুর আচরণ করছেন। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট অনুরোধ এসব কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ও আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করুন। সম্পাদনা : রাজীব রায়হান, ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]