• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » [১]ভারতে প্রতি দশ লক্ষ মানুষের মধ্যে করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে মাত্র ১৮ জনের, [২]সংক্রমণের মাত্রা তৃতীয় পর্যায়ে পৌঁছানোর আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের


[১]ভারতে প্রতি দশ লক্ষ মানুষের মধ্যে করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে মাত্র ১৮ জনের, [২]সংক্রমণের মাত্রা তৃতীয় পর্যায়ে পৌঁছানোর আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের

আমাদের নতুন সময় : 31/03/2020

মশিউর অর্ণব : [৩] বিশেষজ্ঞদের মতে, ভারত ইতোমধ্যেই করোনাভাইরাস সংক্রমণের তৃতীয় পর্যায়ে (কমিউনিটি ট্রান্সমিশন) পৌঁছেছে, কেননা বর্তমানে স্থানীয় লোকদের মাধ্যমেই অন্যরা সংক্রমিত হচ্ছেন। বিবিসি, এনডিটিভি, হিন্দুস্থান টাইমস, ইন্ডিয়া টুডে। [৪] দেশটিতে গত কয়েকদিনে এমন কয়েকজন করোনা পজেটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন যারা বিদেশফেরত নন, এমনকি বিদেশ থেকে সংক্রমণ নিয়ে ফিরেছেন এমন ব্যক্তির সংস্পর্শেও তারা আসেননি।
[৫] ভারতে করোনাভাইরাস মোকাবেলায় গঠিত জাতীয় টাস্কফোর্সের সমন্বয়ক গিরিধার গিয়ানি জানান, এরকম অজ্ঞাত উৎসের কেসগুলোই ‘কমিউনিটি ট্রান্সমিশন’ বা তৃতীয় পর্যায়ের সংক্রমণের অন্যতম লক্ষণ। [৬] তিনি আরও বলেন, সংশ্লিষ্ট সবাইকে একটি বিষয় বোঝাতে আমি সক্ষম হয়েছি যে, তৃতীয় পর্যায়ের সংক্রমণের জন্য অপেক্ষা না করে এখনই সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করা দরকার। কেননা এরকম জনবহুল একটি দেশে সত্যিই যদি তৃতীয় পর্যায়ে সংক্রমণ পৌঁছে যায়, তখন আর কিছুই করার থাকবে না। [৭] দেশটির একশোরও বেশি পরীক্ষাগারে প্রতিদিন প্রায় পাঁচ হাজারের মতো রোগীর করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]