[১]সরকারি পিপিই না পাওয়ায় ব্যবহৃত ও অনুদানের পিপিই নার্সদের পৌছে দেয়া হয়েছে

আমাদের নতুন সময় : 06/05/2020

লাইজুল ইসলাম : [২] নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা নিষেধ থাকায় পরিচয় গোপন শর্তে কথা বলেন তাঁরা।
[৩] শর্ত সাপেক্ষে তাঁরা বলেন, সরকারের দেওয়া পিপিই স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মাধ্যমে হাসপাতালে দেওয়া হলেও আসে নি নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরে। কিন্তু আলাদা করে অধিদপ্তরের আসলে বন্টন ভালো হতো। হাসপাতালে দেওয়ার ফলে অনেক নার্স পুরো পিপিই পায় না।
[৪] তারা বলছেন, সমন্বয় করে কাজ করলে এতগুলো নার্স সংক্রমিত হতো না। এরপর যখন দেখা গেলো নার্সদের অবস্থা খারাপ তখন নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরের কর্মকর্তা বিভিন্ন স্থান থেকে অনুদান চাওয়া শুরু করলো। সেই অনুদানের পিপিই নার্সদের হাতে পৌছে দেওয়া হয়। [৫] এমনও অবস্থা হয়েছিলো, ব্যবহৃত পিপিই যেগুলো ধুয়ে ২য় বার ব্যবহার করা যায়। সেগুলো অনুদান হিসেবে পেয়ে নার্সদের কাছে পৌছে দেওয়া হয়েছে। এগুলো ঢাকার ভিতরেই হয়েছে। নার্সদের হাতে পিপিই পৌছে দিয়ে বলা হয়েছে, যার না হলেই চালবে না তাকেই পিপিই দিতে। [৬] তারা বলেন, নার্সদের কোনো ওষুধ কম্পানি বা বড় প্রতিষ্ঠান পিপিই দিচ্ছিলো না। কিন্তু পরে অধিদপ্তরের ডিজির প্রচেষ্টায় অনেকে নার্সদের আলাদা করে পিপিই দিয়েছে। সেগুলোও নার্সদের হাতে পৌছে দেয়া হচ্ছে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : info@amadernotunshomoy.com