• প্রচ্ছদ » » উকুন মারার ওষুধে করোনা চিকিৎসা : অ্যা নিউ হোপ


উকুন মারার ওষুধে করোনা চিকিৎসা : অ্যা নিউ হোপ

আমাদের নতুন সময় : 18/05/2020

সাবিনা শারমিন

একেবারে ব্যক্তিগত অনুভ‚তিতে যখন করোনাভাইরাসকে পর্যবেক্ষণ করি, এর অদৃশ্য তাÐব ও ধ্বংসযজ্ঞ দেখি, তখন এই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়াকে, আমরা সাধারণত ‘রোগকে’ যেভাবে দেখি, একেবারেই সে রকম রোগ মনে হয় না। সাধারণত রোগ হলে প্রথমে উপসর্গ দেখা দেয়, এরপর ডায়াগনোসিস, তারপর চিকিৎসা বা মৃত্যু। কিন্তু করোনা আসে, ঢুকে পরে, জীবন হাতে নেয়, তারপর একটানে জান কবজ করে রওয়ানা হয়। জীবন না নেওয়া পর্যন্ত এ শয়তান থামে না। কী আশ্চর্য তাই না? কখনো কখনো মনে হয় এটি মানব সভ্যতার শত্রæ, সাক্ষাৎ শয়তান। যা মানুষের অলক্ষ্য সন্তর্পণে বন্দুকের ট্রিগার থেকে মানুষের শরীরে সরাসরি ঢুকে সব শরীর হাতড়ে সূ² বিষক্রিয়া ঢেলে দেয়। এসএসসি পরীক্ষার আগে মুখে খুব ব্রণ হয়েছিলো। ডাক্তারের কাছে গেলে ডাক্তার ডক্সিসাইক্লিন দিয়েছিলেন। এজন্য এই ওষুধের নামটি আমার কাছে দীর্ঘদিনের পরিচিত।
আমাদের জন্য আপাতত প্রস্তাবিত সুখবর হলো, এটি নাকি করোনা চিকিৎসায় ব্যবহৃত হবে। সেইসঙ্গে উকুন মারার ওষুধ আইভারমেকটিন। পরীক্ষামূলকভাবে এই ওষুধের প্রয়োগের নেতৃত্বে দিচ্ছেন বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. তারেক আলম। তিনি ইন্টারনাল মেডিসিন ও শ্বাসতন্ত্র রোগের স্পেশালিস্ট। আইভারমেকটিনের সঙ্গে ডক্সিসাইক্লিন প্রয়োগ করে তারা দেখেছেন, কোভিড-১৯ রোগীদের উপসর্গগুলো ৩ দিনের মধ্যেই নাকি ৫০ শতাংশ কমে গেছে। এ রকম আশাই দিলেন অধ্যাপক ডাক্তার তারেক। তাহলে কি এখন বুঝতে হবে করোনার চরিত্র উকুন আর ব্রণের মতো? অতি দুঃখ-কষ্টের মধ্যেও একটু হালকা হওয়ার জন্য একটু মজা করলাম। না মজা নয়, উকুনের ওষুধ আইভারমেকটিন পরজীবী ভাইরাসের নার্ভ কোষে আক্রমণ করে একে একেবারে পরাস্ত করে ছাড়ে ও ভাইরাসের সংখ্যা বৃদ্ধিতেও বাধা প্রয়োগ করে। তবে এ ওষুধ দুটি ভাইরাসের বিরুদ্ধে কীভাবে কাজ করে তা এখনো স্পষ্ট নয় বলে জানান ডা. তারেক আলম। দেখা যাক হোপ ফর দ্য বেস্ট। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]