• প্রচ্ছদ » » যেকোনো নিচাপ ও ঘূর্ণিঝড় সম্ভাবনার সময়ে সুন্দরবনের কথা মনে আসে


যেকোনো নিচাপ ও ঘূর্ণিঝড় সম্ভাবনার সময়ে সুন্দরবনের কথা মনে আসে

আমাদের নতুন সময় : 21/05/2020

ফিরোজ আহমেদ

প্রকৃতি একটা সুরক্ষাপ্রাচীর তৈরি করে দিয়েছিলো আমাদের জন্য, আর একটা সরকার সেই বনটাকে ধ্বংস করবার সকল আয়োজন সম্পন্ন শুধু করেনি, সেই মহাঅরণ্যটাকে রক্ষার সকল আন্দোলনকে দমন-পীড়ন-নির্যাতন দিয়ে গুড়িয়ে দিতেও সর্বশক্তি নিয়োগ করেছে। ভয়াবহ একটা ঘূর্ণিঝড় কবে হবে আমরা তা জানি না, কিন্তু ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় যে প্রস্তুতি আমাদের নিতে হয়, তার একটা বড় অংশ হলো উপক‚লীয় অরণ্যের একটা দেয়াল। সুন্দরবনের জন্য আমাদের কোনো বিনিয়োগ করতে হয়নি, উপরন্তু বরং সুন্দরবন নিজেই মৎস-মধু-কাঠ-পর্যটন-সহ বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় কর্মসংস্থান আর অর্থনৈতিক যজ্ঞেরও উৎস। মহামারীও কখন আসবে, সেটা আমরা জানি না, কিন্তু একটা উপযুক্ত স্বাস্থ্যব্যবস্থা তার একমাত্র পূর্বপ্রস্তুতি। সেই অর্থে করোনার এই মহামারীও তো একটা ধেয়ে আসা ঘূর্ণিঝড়ই, দিনের পর দিন, বছরের পর বছর নি¤œচাপ আকারে সে ঘোরাফেরা করেছে, ডেঙ্গু-চিকনগুনিয়া-নিপাহ্-উদরাময়-যক্ষার আকারে স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের আমলাদের প্রস্তুতিকে সুযোগ দিয়েছে। আমরা কেবলই অবহেলা করেছি এদের ইঙ্গিত। তারপর বিপর্যয়টা যখন আসলো, পোশাকশ্রমিক থেকে অধ্যাপক আনিসুজ্জামানÑ তার সর্বব্যাপ্ত রূপটা আমরা দেখতে পাচ্ছি। আমাদের অপ্রস্তুতি, দুর্নীতি আর সমন্বয়হীনতার, অদক্ষতার পুরো পরীক্ষাটা নিচ্ছে সে, যদিও তার সবচেয়ে খারাপটা এখনো নাকি আসেনি। দুর্যোগগুলো তার যাবতীয় বিপর্যয় সমেতই আমাদের জন্য শিক্ষাস্বরূপও হতে পারে, যদি শিক্ষা গ্রহণের উপযুক্ত মানসিকতা আমাদের থাকে, থাকে সেই শিক্ষা বাস্তবায়নের উপযুক্ত বিকল্প রাজনীতি গড়ে তোলার আকাক্সক্ষা। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]