• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]তারেক রহমান বলেছেন, এই ‘দল এবং সরকার’ এখন সম্পূর্ণভাবে লুটেরা পরিবেষ্টিত : রিজভী


[১]তারেক রহমান বলেছেন, এই ‘দল এবং সরকার’ এখন সম্পূর্ণভাবে লুটেরা পরিবেষ্টিত : রিজভী

আমাদের নতুন সময় : 24/05/2020

শাহানুজ্জামান টিটু : [২] বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের বক্তব্য উদ্ধৃত করে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, তারেক রহমান বলেছেন, দেশে চলছে নীরব দুর্ভিক্ষ পরিস্থিতি। লুটেরাদের কবলে পড়ে দেশটা এখন রসাতলে যাওয়ার উপক্রম। ত্রাণ চোর’ থেকে ‘চাল চোর’, সেই একই চক্র, একই দল, একই কাহিনী, একই বাহিনী।
[৩] তিনি বলেন, এমন পরিস্থিতিতেও সারাদেশে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের ত্রাণের চাল চুরি, নানা কৌশলে অসহায় মানুষদের জন্য বরাদ্দ সরকারি টাকা আত্মসাৎ, সরকারিভাবে গরিব কৃষকদের কাছ থেকে ধান ক্রয়ের জন্য করা তালিকাতেও চলছে জালিয়াতি।
[৪] রিজভী বলেন, তারেক রহমান বলেছেন, উৎসবের পরিবর্তে এবারের ঈদ উদযাপিত হতে যাচ্ছে এক বেদনাবিধুর পরিবেশে। একদিকে করোনা ভাইরাস কিংবা আম্ফানের মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগ অপরদিকে ‘ত্রাণ চুরি গরিব ও অসহায়দের জন্য বরাদ্দ করা সরকারি অর্থ নিয়ে জোচ্চুরি, মনুষ্যসৃষ্ট দুর্যোগ হিসেবে দেখা দিয়েছে।
[৫] তিনি বলেন, গত এক দশক ধরে জনগণ ক্ষমতাসীনদের মুখে একটাই ‘বুলি’ শুনে আসছে, ‘এটার প্রতি জিরো টলারেন্স-ওটার প্রতি জিরো টলারেন্স’। তবে বাস্তবতা সম্পূর্ণ ভিন্ন। ক্ষমতাসীনরা শুধুমাত্র বিরোধী দল ও মতের প্রতিই ‘জিরো টলারেন্স’। আর বরাবরই তাদেরকে দেখা যাচ্ছে দুর্নীতি, ঋণখেলাপি, লুটপাট, টাকা পাচার আর ব্যাংক লুটেরাদের প্রতি উদার।
[৬] গতকাল সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে
রিজভী আরো বলেন, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তার বক্তব্যে স্পষ্ট করেই বলেছেন, গত একদশকে দেশ থেকে নয় লক্ষ কোটি টাকা পাচার হয়েছে, বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ ফান্ড থেকে আটশো দশ কোটি টাকা লোপাট হয়েছে। দেশে এই মুহূর্তে খেলাপি ঋণের পরিমাণ প্রায় একলক্ষ কোটি টাকা। সরকারের প্রশ্রয়ে কয়েকটি ব্যাংকের মূলধন পর্যন্ত হজম করে ফেলা হয়েছে। লুটেরা দল এভাবে দেশের লক্ষ লক্ষ কোটি টাকা পাচার, লোপাট আর লুটপাট করার সুযোগ না পেলে জনগণকে হয়তো এখন অর্ধাহার-অনাহারে দিন কাটাতে হতো না। সম্পাদনা : সালেহ্ বিপ্লব




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]