• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]করোনা মোকাবেলায় জীবন ও জীবিকার সংঘাতে সামঞ্জস্যপূর্ণ সমাধান করতে হবে: ড. মির্জ্জা আজিজ [২]মানচিত্র ব্যবহার করে লকডাউন দিতে হবে: ড. মাহবুব উল্লাহ [৩]জরুরি কাজে নিয়োজিতদের র‌্যাপিড টেস্টের আওতায় আনতে হবে: ড. লেলিন চৌধুরী


[১]করোনা মোকাবেলায় জীবন ও জীবিকার সংঘাতে সামঞ্জস্যপূর্ণ সমাধান করতে হবে: ড. মির্জ্জা আজিজ [২]মানচিত্র ব্যবহার করে লকডাউন দিতে হবে: ড. মাহবুব উল্লাহ [৩]জরুরি কাজে নিয়োজিতদের র‌্যাপিড টেস্টের আওতায় আনতে হবে: ড. লেলিন চৌধুরী

আমাদের নতুন সময় : 27/05/2020

রায়হান রাজীব, শরীফ শাওন : [৪] সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ড. এ বি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে দ্রুত সম্ভব প্রথমে রপ্তানিখাত, দ্বিতীয়ত মুদি দোকান, তৃতীয়ত কৃষি খাত ও চতুর্থ পরিবহন খাত উন্মুক্ত করা প্রয়োজন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং সীমিত সময়ের জন্য সব দোকনপাট ও যানবাহন চলাচলের অনুমতি দেওয়া প্রয়োজন। এর কোন বিকল্প নেই। [৫] অর্থনীতিবিদ ড. মাহবুব উল্লাহ বলেন, যুদ্ধকালীন সময়ের মতো দেশের মানচিত্র নিয়ে বসতে হবে। দেশের কোন কোন স্থানে এ মহামারি গুচ্ছ আকারে আছে তা শনাক্ত করে কঠোর লকডাউন দিতে হবে। তিনি বলেন, তিনটি বিষয় সুনিশ্চিত করতে হবে। হাসপাতালকে সুস্বজ্জিত করে রোগীদের ভর্তি ও চিকিৎসা ব্যবস্থা নিশ্চিত; নার্স ও টেকনিশিয়ানদের প্রশিক্ষণ এবং বহির্বিশ্বকে অনুসরণ ও যোগাযোগ বাড়াতে হবে। [৬] জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ড. লেলিন চৌধুরী বলেন, যাদের শরীরে ভাইরাসের অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে তাদের দিয়ে কাজ করানো এবং বাকিদের ১০ থেকে ১৪ দিনের ছুটিতে রাখতে হবে। পরবর্তীতে পুনরায় তাদের অ্যান্টিবডি টেস্ট করতে হবে। র‌্যাপিড টেস্টের পরিধি বাড়ানোর বিষয়ে জোর দিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশে লকডাউন জারি করলেও সংস্পর্শে আসাদের তালিকা ও রোগীদের ব্যবস্থাপনায় ঘাটতি থাকায় সাফল্য পাওয়া যায়নি। [৭] তিনি বলেন, করোনা রোগীর ঘনত্বকে বিবেচনা করে দেশকে লাল, হলুদ ও সবুজ- এই ৩টি জোনে ভাগ করতে হবে। ব্যপক সংক্রমিত এলাকা লাল, কম সংক্রমিত এলাকা হলুদ ও সংক্রমণ ছাড়া এলাকা সবুজ। সবুজ জোনকে হলুদ ও লাল জোনের লোকজন থেকে আলাদা রাখতে হবে। হুলুদ জোনের শনাক্ত ব্যক্তি ও তাদের সংস্পর্ষে আসাদের চিহ্নিত করে টেস্টের আওতায় এনে চিকিৎসা নিশ্চিত করলে সেসকল এলাকাকে সবুজ জোনে পরিনত করা সম্ভব। লাল জোনের আওতাধীন ব্যাক্তিদের করোনা প্রতিরোধ ও চিকিৎসার মাধ্যমে সেবা দিতে পারি। সম্পাদনা: সিরাজুল ইসলাম




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]