• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » [১]আমেকিার উচিত মানবাধিকারের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া : মোহাম্মদ জমির, [২]দেশটিতে গণতন্ত্রের বড় অভাব ধরা পড়ায় বিশ^ রাজনীতি ও গণতন্ত্র নিয়ে কথা বলার জায়গাটা কমে যাবে


[১]আমেকিার উচিত মানবাধিকারের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া : মোহাম্মদ জমির, [২]দেশটিতে গণতন্ত্রের বড় অভাব ধরা পড়ায় বিশ^ রাজনীতি ও গণতন্ত্র নিয়ে কথা বলার জায়গাটা কমে যাবে

আমাদের নতুন সময় : 03/06/2020


ভূঁইয়া আশিক : [৩] এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপে সাবেক রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জমির বলেন, মানবিধকার লঙ্ঘন কোনোমতেই সমর্থন করা যায় না। যদি কোনো জায়গায় মানবাধিকার লঙ্ঘিত হয়, খুব দৃঢ়ভাবে তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে হবে। আমেরিকায় শুধু বর্ণবাদী আচরণই করা হচ্ছে না, সাংবাদিকদেরও উপর নির্যাতন হচ্ছে। এটা গ্রহণযোগ্য নয়।
[৪] আমেরিকা মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলে পৃথিবীর নানা দেশ সম্পর্কে মন্তব্য করে, একই কথা তো তাদের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। চীনসহ কয়েকটি দেশ আমেরিকায় মানবিধকার লঙ্ঘনের বিষয়ে কথা বলেছে। অন্য দেশগুলোকেও কথা বলা উচিত।
[৫] আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষক অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, কতোদিন আন্দোলন চলবে, কারফিউ প্রত্যাহার করা হবে কিনা দেশটির জনগণের উপর নির্ভর করছে। সমস্যাটা অনেক গভীর। এ সমস্যা এ কয়েকদিনের নয়, দীর্ঘদিনের। দেশটির রাজনীতিবিদ, সরকার কীভাবে হ্যান্ডেল করে দেখার বিষয়। [৬] দেশটি এতোদিন পৃথিবীর অন্য দেশের মানবিধকার, গণতন্ত্রসহ অনেক বিষয়ে কথা বলে এলেও এখন আর আগের জোরটা নেই, এখন আরও কমে যাবে।
[৭] সমাধান আমেরিকান জনগণকেই করতে হবে। আমেরিকার আন্দোলন বিশ^রাজনীতিতে তাদের প্রভাব কমবে কিনা, এতো তাড়াতাড়ি বলা যাবে না।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]