• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » [১]চীনের নিরাপত্তা আইনকে ফাঁকি দিতে প্র্রতিবাদের ‘গোপন ভাষা’ ব্যবহার করছে হংকংয়ে স্বাধীনতাকামী ও গণতন্ত্রপন্থীরা


[১]চীনের নিরাপত্তা আইনকে ফাঁকি দিতে প্র্রতিবাদের ‘গোপন ভাষা’ ব্যবহার করছে হংকংয়ে স্বাধীনতাকামী ও গণতন্ত্রপন্থীরা

আমাদের নতুন সময় : 05/07/2020

লিহান লিমা : [২] গত ১ জুলাই থেকে কার্যকর হওয়া নিরাপত্তা আইনে প্রতিবাদের ধরণ পাল্টে গেছে। নতুন আইনে নিষিদ্ধ হংকংয়ের স্বাধীনতাপন্থী সব স্লোগান ও গণতন্ত্রের পক্ষে দেয়াল লেখন। এই আইনকে ফাঁকি দিতে অভিনবপন্থায় চীনা কমিউনিস্ট পার্টির সাহিত্য এবং সাদা কাগজ দিয়েই প্রতিবাদ করছেন হংকংবাসী। আল জাজিরা
[৩] গণতন্ত্রপন্থী অধিকারকর্মী চান কিন মান বলেন, এই শহর মনের কথা বলতে অভ্যস্ত। জনসম্মুখে জনগণ হয়তো আইন দ্বারা নিষিদ্ধ শব্দ বলতে পারবে না। কিন্তু প্রতিবাদের গোপন ভাষা আইন দ্বারা নিষিদ্ধ নয়।
[৪] হংকংয়ের সামাজিক মাধ্যম এবং চ্যাটবক্স ভরে গেছে কিভাবে নিরাপদভাবে বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে হবে সেই সব পরামর্শে। শহরের অনেক দোকান ও রেস্তোঁরার দেয়াল মুড়ে ফেলা হয়েছে সাদা কাগজে। যা প্রকাশ করছে তাদের মত প্রকাশের স্বাধীনতা নেই। আগে এই দেয়ালেই লেখা থাকতো গণতন্ত্রের দাবিতে স্লোগান।
[৫] ইতোমধ্যেই বিক্ষোভ করায় ৩৭০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে ২০জনকে নতুন আইনে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ‘হংকং মুক্ত কর’ লেখা প্রতীক ব্যবহার করায় ‘সন্ত্রাসবাদ’ এর অভিযোগ আনা হয়েছে টং ইং কিটের বিরুদ্ধে । হংকংয়ে নবগঠিত নিরাপত্তা সংস্থার প্রধান হিসেবে কট্টর বেইজিংপন্থী নেতা ঝেং ইয়াংশিয়ংকে নিয়োগ দিয়েছে চীন। সম্পাদনা: ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]