• প্রচ্ছদ » » গরু কিনে হেঁটে বাড়ি ফিরতাম কষ্টের হলেও খুব উপভোগ করতাম


গরু কিনে হেঁটে বাড়ি ফিরতাম কষ্টের হলেও খুব উপভোগ করতাম

আমাদের নতুন সময় : 29/07/2020

মে. জে. (অব.) আবদুর রশিদ

আমি মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান ছিলাম। ঈদকে কেন্দ্র করে সবাই আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতাম। সামর্থ্যরে মধ্যে থাকলে বাবা আমাদের কোনো কিছু অপূর্ণ রাখতেন না। তখন ঈদের বিশেষ আকর্ষণ ছিলো পশু কোরবানি করা। গরু কিনতে বাবার সঙ্গে হাটে আমিও যেতাম। সেটা খুব উপভোগ করতাম। গরু পছন্দ হলে কিনে হেঁটে বাড়িতে নিয়ে আসতাম। কষ্টের হলেও আনন্দ পেতাম। যা এখনও অনুভব করি। ঈদের দিন সকালে সবাই মিলে একসঙ্গে নামাজ পড়তে যেতাম। নামাজ শেষে সবার সঙ্গে কোলাকুলি করতাম। তারপর বাড়িতে এসে মিষ্টি মুখ করে, গরু কোরবানির জন্য প্রস্তুতি নিতাম। বাবা সাধারণত আত্মীয়-স্বজন বা প্রতিবেশীদের সঙ্গে মিলে ভাগে কোরবানি দিতেন। মাংস কাটা শেষ হলে যখন মানুষের মাঝে বিলি করা হতো, তখন আমার খুব আনন্দ লাগতো। আত্মীয়-স্বজন, গরিব মানুষের মধ্যে বিলি শেষে বাকিটুকু বাড়িতে নিয়ে আসতাম। এর মধ্যেই মা জোর করে আমাকে সেমাই, পোলাও-মাংস খাওয়াতেন। এরপর নতুন পাঞ্জাবি পরে বন্ধুদের বাসায় যেতাম। বন্ধুদের মায়েরা আমাদের নিজের সন্তানের মতো করে আদর করতেন। যা এখনও খুব মনে পড়ে। এখন শহরের মানুষের মধ্যে সেই আনুষ্ঠানিকতা-আন্তরিকতা দেখা যায় না। মানুষ শুধু ঈদটাকে পালন করে, উপভোগের জায়গাটা কমে গেছে। পরিচিতি : নিরাপত্তা বিশ্লেষক। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন আব্দুল্লাহ মামুন




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : info@amadernotunshomoy.com