• প্রচ্ছদ » » ভারতীয় মিডিয়ার স্পর্ধিত ভাষা : ‘শেখ হাসিনা লক্ষণ রেখা অতিক্রম করেছেন’


ভারতীয় মিডিয়ার স্পর্ধিত ভাষা : ‘শেখ হাসিনা লক্ষণ রেখা অতিক্রম করেছেন’

আমাদের নতুন সময় : 29/07/2020

মাসুদ রানা : গত ২৬ জুলাই ভারতীয় মিডিয়া ঘউঞঠ তাদের ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ফোনালাপের বিষয়বস্তু নিয়ে জনৈক সুবির ভৌমিককে উদ্ধৃত করে উদ্বেগ জানিয়ে লিখেছেন, ‘ঝযবরশয ঐধংরহধ যধং পৎড়ংংবফ ধ খধীসধহ জবশযধ রহ য়ঁরঃব ধ ফবপরংরাব ধিু’ (শেখ হাসিনা বেশ নিশ্চায়করূপে একটি লক্ষণ রেখা অতিক্রম করে ফেলেছেন)। ভারতীয় সংস্কৃতিতে লক্ষণ রেখা বলতে বোঝায় দুর্বলের জন্যে রক্ষাকর্তার দেওয়া অনতিক্রম্য নিরাপত্তা সীমারেখা। এটি এসেছে রামায়ণের কাহিনি থেকে, যেখান রামের ভাই লক্ষণ মাটির ওপর একটি রেখা এঁকে তাঁর ভ্রাতৃবধু সীতাকে তা অতিক্রম করতে বারণ করেছিলেন। ভারতীয় মিডিয়া যখন স্বাধীন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে সীতার মতো লক্ষণ রেখা মান্যতার আশা করে এবং অমান্যতায় উদ্বেগ প্রকাশ করে, তখন মনে হয় ভারতীয় এস্টাবিøশমেণ্ট শেখ হাসিনাকে তাদের অধীনস্ত আজ্ঞাবাহী মনে করে। উল্লেখ্য, গত ২৫ জুলাই ভারতীয় ইংরেজি দৈনিক ঞযব ঐরহফঁ অত্যন্ত স্পর্ধার সঙ্গে লিখেছিলো ‘ঝযবরশয ঐধংরহধ যধং ভধরষবফ ঃড় সববঃ ওহফরধহ বহাড়ু ফবংঢ়রঃব ৎবয়ঁবংঃং’ ( অনুরোধ সত্তে¡ও শেখ হাসিনা ভারতীয় দূতের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে ব্যর্থ হয়েছেন)। বিষয়টি শেখ হাসিনার কেমন লাগছে জানি না। কিন্তু আমার মনে হয়, শেখ হাসিনাকে রাজনৈতিকভাবে পছন্দ করেন না এমন বাঙালি আছেন কোটি-কোটি, যারা তার প্রতি ভারতীয় মিডিয়ার এই স্পর্ধিত ভাষার ব্যবহার স্বাধীন জাতির মানুষ হিসেবে অপমানিত বোধ করেছেন। আমি মনে করি, বাংলাদেশের উচিত ভারতের সঙ্গে যথাযথ ক‚টনৈতিক পন্থায় এর একটা বিহিত করা। লÐন, ইংল্যান্ড। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : info@amadernotunshomoy.com