[১]নভেল করোনাভাইরাসকে নয়, মিয়ানমার সেনাবাহিনীকে বেশি ভয় পান রাখাইনের নাগরিকরা

আমাদের নতুন সময় : 15/09/2020

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] ৩ সেপ্টেম্বর প্রচ- গোলাগুলির আওয়াজে ঘুম ভাঙে থার হ্লার। তিনি আল জাজিরাকে টেলিফোনে জানান, মনে হচ্ছিল, তিনি ৭০ জনের সঙ্গে যে সরকারি কোয়ারান্টাইন সেন্টারে আছেন তা মোটেও নিরাপদ নয়। আল জাজিরা ।[৩] সেই রাতেই কোয়ারেন্টাইন সেন্টার ছেড়ে পালিয়ে যান। পলাতকদের একজন ইউ ইয়েট থি বলেন, ‘তাতমাদাও (সেনাবাহিনী) আমার গ্রামের চারিদিকে বিনা নোটিশে গোলাগুলি করছিলো। আমরা বুঝতে পারছিলাম না কিভাবে আমাদের জীবন বাঁচবাবো। [৪] রাখাইন রাজ্যের এটা নিয়মিত দৃশ্য হয়ে গেছে। তাতমাদাও বা সেনাবাহিনী যখন তখন গ্রামগুলোতে হামলা চালাচ্ছে। স্থানীয় গণমাধ্যম জানায়, সে রাতে ২টি গ্রামের ১৬৬টি বাড়ি বিনা নোটিশে জ্বালিয়ে দেয়া হয়। এখন শুধু রোহিঙ্গা নন, আক্রমণের শিকার হচ্ছেন রাখাইনসহ সকল সম্প্রদায়। [৫] এদিন সন্ধ্যায় বিদ্রোহী দল আরাকান আর্মি একটি সেনা গাড়িতে হামলা চালায। এর প্রতিশোধ নিতেই নিরিহ গ্রামবাসীর উপর হামলা করে তাতমাদাও। গত ১ সপ্তহে রাখাইনে সামরিক উপস্থিতি বেড়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা। নতুন করে ট্যাঙ্ক আনার কথাও জানিয়েছে তারা। সম্পাদনা: ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : info@amadernotunshomoy.com