[১]করোনা সংক্রমণের পর থেকে সিঙ্গাপুরে অভিবাসী বাংলাদেশিরা ভালো নেই: বিবিসি

আমাদের নতুন সময় : 19/09/2020

দেবদুলাল মুন্না:[২] সিঙ্গাপুরে করোনাভাইরাস সংক্রমণের পর লকডাউন দেয়া হলেও এখন লকডাউন নেই। আস্তে আস্তে খুলে দেয়া হচ্ছে দোকানপাট, অফিস। লোকজন কাজে ফিরছেন। কিন্তু সিঙ্গাপুরে শ্রমিক হিসেবে কাজে যাওয়া বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশি সহ অভিবাসীদের জীবনযাত্রা এখনও ‘জেলখানায়’ বন্দি। এখনও তাদেরকে একটি রুমে বন্দি থাকতে হচ্ছে। তারা না পাচ্ছেন বেতন। না পাচ্ছেন কাজ। ফলে সঞ্চয়ের টাকা খরচ করে এখন অসহায় হয়ে দেশে ফিরতে চান। শুক্রবার বিবিসি এ নিয়ে রিপোর্ট প্রকাশ করে।
[৩] সিঙ্গাপুরে অবস্থান করেন বাংলাদেশি ৩ লাখ শ্রমিক। তাদের বেশির ভাগই কাজ করেন নির্মাণ শিল্প ও কলকারখানায়। তারা যেসব ডর্মে অবস্থান করেন সেখানে প্রতিটি রুমে কতজন থাকতে পারবেন তার সর্বোচ্চ সীমা নির্ধারণের কোনো আইন নেই। করোনাপূর্ববর্তী সময়ে প্রতিটি রুমে থাকতেন ২০ জন করে।
[৪] মানবাধিকার বিষয়ক গ্রুপ ‘ইটস রেইনিং রেইনকোটস’-এর প্রতিষ্ঠাতা দীপা স্বামীনাথান বলেছেন, বহু অভিবাসী শ্রমিকের জন্য এটাই হয়ে উঠেছে দীর্ঘদিনের ব্যবস্থা। খাদ্য ও ডর্ম নিয়ে যেসব কথা বলা হচ্ছে এখন, এটা বহু বছরের ঘটনা। এ বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। কারণ, বিষয়গুলো অভিযোগ আকারে আসছে না।
[৫] তবে মানবসম্পদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় বিবিসিকে বলেছেন, যেসব বিদেশি শ্রমিক পূর্ণ সময় কাজ করেন তাদের বেতন পরিশোধ করা উচিত। সম্পাদনা: ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]