• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]সিলেটে এমসি কলেজে ধর্ষণ মামলায় আরও ৩ জন গ্রেপ্তার [২]আদালতে সাইফুর-অর্জুন নিজেদের নির্দোষ দাবি করে তিন ধর্ষকের নাম বললেন [৩]প্রধান আসামিসহ ৩ জন রিমান্ডে


[১]সিলেটে এমসি কলেজে ধর্ষণ মামলায় আরও ৩ জন গ্রেপ্তার [২]আদালতে সাইফুর-অর্জুন নিজেদের নির্দোষ দাবি করে তিন ধর্ষকের নাম বললেন [৩]প্রধান আসামিসহ ৩ জন রিমান্ডে

আমাদের নতুন সময় : 29/09/2020

আশরাফ রাজু : [৪] সিলেটে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে গৃহবধূকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় রাজন ও আইনুলকে েেরাববার দিবাগত রাত একটায় গ্রেপ্তার করা হয়। মামলার ৬ নং আসামি মাহফুজকে গত রাতে জৈন্তাপুরের হরিপুর থেকে গ্রেপ্তার করা হয় । [৫] র‌্যাব-৯ সিলেটের একটি সূত্র জানায়, রাজন ও আইনুল ছাত্রাবাসে তরুণীকে গণধর্ষণ মামলার অজ্ঞাত আসামি ছিলো। ছায়া তদন্তে নেমে র‌্যাব এতথ্য নিশ্চিত হয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে। [৬] সোমবার বিকেলে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ এমসি কলেজ শাখার সভাপতি রবিউল হাসানকে সিলেট মহানগর হাকিম ২য় আদালতের বিচারক মো. সাইফুর রহমান তার এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরআগে দুপুর ১২টায় একই আদালতে এই মামলার প্রধান আসামি সাইফুর রহমান ও ৪ নম্বর আসামি অর্জুন লস্করেরও পাঁচদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। [৭] সোমবার বেলা ১১ টা ৪০ মিনিটে সাইফুর ও অর্জুনকে আদালত চত্বরে হাজির করার পর পুলিশি নিরাপত্তার মধ্যেই বিক্ষোভ করেন উপস্থিত জনতা। আদালতে চত্বরে শতাধিক জনতা জড়ো হয়ে দুই আসামিকে দেখা মাত্রই ‘ফাঁসি চাই, ফাঁসি চাই’ শ্লোগান শুরু করেন। [৮] আদালতে কাঠগড়ায় সাইফুর ও অর্জুন ঘটনার সঙ্গে জড়িত নয় বলে দাবি করে বক্তব্য দেন। তারা বলেন, ‘আমরা অপরাধের সঙ্গে জড়িত নই। রাজন, আইনুল ও তারেক গৃহবধূকে গণধর্ষণ করেছে।’ [৯] দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় শনিবার সকালে নির্যাতনের শিকার গৃহবধূর স্বামী বাদি হয়ে দায়ের করা মামলায় ছাত্রলীগ কর্মী সাইফুর রহমানকে প্রধান আসামি করে তারেক, অর্জুন, রনি, মাসুম ও রবিউলের নাম উল্লেখ করেন। মাসুম ও তারেককে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। সম্পাদনা: ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]