• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]৭৫ শতাংশ স্থায়ী শিক্ষক রাখার বিধান রেখে বেসরকারি মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কলেজ আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন [২]১০ শতাংশ শয্যা গরীব রোগীদের বিনা পয়সায় চিকিৎসার জন্য সংরক্ষিত রাখতে হবে


[১]৭৫ শতাংশ স্থায়ী শিক্ষক রাখার বিধান রেখে বেসরকারি মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কলেজ আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন [২]১০ শতাংশ শয্যা গরীব রোগীদের বিনা পয়সায় চিকিৎসার জন্য সংরক্ষিত রাখতে হবে

আমাদের নতুন সময় : 29/09/2020

আনিস তপন, তাপসী রাবেয়া: [৩] ২৫ শতাংশের বেশি খ-কালীন (পার্টটাইম) শিক্ষক রাখা যাবে না এমন বিধান রেখে ‘বেসরকারি মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কলেজ আইন, ২০২০’ এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। [৪] সোমবার গণভবন প্রান্ত থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রীরা এই ভার্চুয়াল বৈঠকে যোগ দেন।
[৫] বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। খসড়া আইন অনুযায়ী, মেট্রোপলিটন এলাকায় মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজ স্থাপনে দুই একর ও অন্যান্য এলাকায় চার একর জমি থাকতে হবে।[৬] নতুন আইনে বলা হয়েছে ‘প্রত্যেক বিভাগের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীদের অনুপাত হবে ১:১০, অর্থাৎ প্রত্যেক ১০ জন শিক্ষার্থীর জন্য একজন শিক্ষকের ব্যবস্থা থাকতে হবে। মিনিমাম ছাত্র হতে হবে ৫০ জন। [৭] তিনি বলেন, কেউ আইন ভঙ্গ করলে সর্বোচ্চ দুই বছরের কারাদন্ড বা ১০ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দন্ড দেয়া যেতে পারে। শর্তপূরণ না করলে অনুমোদন বাতিল হয়ে যাবে ।[৮] মেডিকেল চিকিৎসা বর্জ্য ব্যবস্থাপনার একটা ব্যবস্থা রাখতে হবে। চিকিৎসা বর্জ্যগুলো খুবই ঝুঁকিপূর্ণ, নরমাল যে ডাম্পিং গ্রাউন্ড সেখানে ফেললে হবে না। সেখানে থেকে ভাইরাস বা রোগ-জীবাণুর ব্যাপক প্রসার হতে পারে। এ জন্য মেডিকেল কলেজগুলোকে মেডিকেল বর্জ্য ডিসপোজালের ব্যবস্থা রাখতে হবে।[৯] তিনি আরও বলেন, মেডিকেল কলেজগুলোতে কমপক্ষে ২৫০ শয্যার হাসপাতাল ও ডেন্টালে ৫০ শয্যার হাসপাতাল থাকতে হবে। সম্পাদনা: ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]