[১]বসতবাড়ি ও কৃষি জমিতে শিল্প-কারখানা নয়: প্রধানমন্ত্রী

আমাদের নতুন সময় : 30/09/2020

স্টাফ রিপোর্টার : [২] মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনেতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় এ নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এ তথ্য জানান।
[৩] প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা তুলে ধরে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আপনারা ব্যবসা করতে চান বা শিল্প করতে চান, তাহলে শিল্প এলাকায় যান। বাড়ির পাশের ধানের জমি নষ্ট করে শিল্প স্থাপন করবেন কেন। আমরা উৎসাহ দেব, আপনারা শিল্প জোনে এসে শিল্পকারখানা স্থাপন করেন। সেখানে আপনারা অন্যান্য সুযোগ-সুবিধাও পাবেন। গ্যাস, রাস্তা, ব্যাংক সব ধরনের সুবিধা পাবেন।
[৪] পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, শুধু মেডিকেল বর্জ্যসহ সব ধরনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা জোরদারে বিশেষ গুরুত্ব দিতেও প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন। বিশেষ করে প্লাস্টিক ও ক্যামিকেল জাতীয় বর্জ বিশেষ করে উচ্চ প্রাধান্য দিয়ে কাজ করতে হবে। তিনি বলেছেন, নদীগুলোকে সংস্কার করতে হবে। বাস, নৌ, বিমানসহ যেকোনো স্টেশনের বর্জ্য অপসারণ করতে হবে। এ কাজে যেসব সংস্থা দায়িত্বপ্রাপ্ত তাদেরও সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে। নদীর পাড় দখল মুক্ত করতে হবে। কচুরিপানা মুক্ত করে ড্রেজিং করতে হবে। [৫] প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, সাব রেজিষ্ট্রার অফিসগুলো পর্যায়ক্রমে ডিজিটাল সিস্টেমের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। ‘মৌজা ও প্লটভিত্তিক জাতীয় ডিজিটাল ভূমি জোনিং’ শীর্ষক প্রকল্প অনুমোদনের সময় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, এ প্রকল্পের সব ডকুমেন্ট বাংলায় তৈরি করতে হবে যাতে সাধারণ মানুষ সহজেই বুঝতে পারে। ডিজিটাল ভূমি জোনিং এর সময় বাংলায় সব তথ্য নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি। [৬] একনেক সভায় মৌজা ও প্লট ভিত্তিক জাতীয় ডিজিটাল ভূমি জোনিংসহ ৪টি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৭৯৬ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। সম্পাদনা: ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]