• প্রচ্ছদ » » পর্যটনে নতুন দিগন্ত হতে যাচ্ছে টেকনাফের সাবরাং ট্যুরিজম পার্ক, প্রকল্পের ডেপুটি সেক্রেটারি মাহবুবুর রহমান বললেন, ২০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে


পর্যটনে নতুন দিগন্ত হতে যাচ্ছে টেকনাফের সাবরাং ট্যুরিজম পার্ক, প্রকল্পের ডেপুটি সেক্রেটারি মাহবুবুর রহমান বললেন, ২০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে

আমাদের নতুন সময় : 14/10/2020

শাহীন মোল্লা : বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পের সাথে যোগ হতে যাচ্ছে সাবরাং ট্যুরিজম পার্ক। এটিই প্রথম কোনো পার্ক যেটি অর্থনৈতিক অঞ্চলের সঙ্গে যুক্ত। এটি শুধু পর্যটন শিল্পের উন্নয়নেই ভ‚মিকা রাখবে না, দেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নেও গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রাখবে। পার্কটি বাংলাদেশের সর্বদক্ষিণে কক্সবাজার জেলার টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নে অবস্থিত যার আয়তন ১০৪৭ একর। রাজধানী থেকে এর দূরত্ব প্রায় ৪৫০ কি.মি.। কক্সবাজার শহর থেকে এটির দূরত্ব প্রায় ৮২ কি.মি.। মেরিন ড্রাইভের মাধ্যমে ট্যুরিজম পার্কের সরাসরি সড়ক যোগাযোগ রয়েছে। কক্সবাজার প্রস্তাবিত বিমানবন্দ থেকে এর দুরত্ব ৮২ কি.মি.। দেশি-বিদেশি পর্যটকের পাশাপাশি স্থানীয় পর্যটকদের ট্যুরিজম পার্কে আরও বেশি আকৃষ্ট করার লক্ষে প্রাকৃতিক, সাংস্কৃতিক, বিনোদন কেন্দ্র-সহ বিভিন্ন ধরনের প্রস্তাবনা রয়েছে। যেগুলোর মাধ্যমে পর্যটন কেন্দ্রটি দেশের মানুষের বিনোদনের মূল আকর্ষণ হবে বলে ধারণা করা হয়।
পার্কভবনের সর্বোচ্চ উচ্চতা ১১ তলা প্রস্তাবিত, যাতে দূরবর্তী সমুদ্রের দৃশ্য ও বিশালতাকে উপভোগ করা যায়। এই মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে ট্যুরিজম পার্কটিতে প্রতিদিনে ৩৯০০০ পর্যটক উপভোগ করতে পারবে এবং প্রায় ১১০০০ মানুষের সরাসরি কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।
এ বিষয়ে সাবরাং প্রকল্পের ডেপুটি সেক্রেটারি মাহবুবুর রহমানের মুঠো ফোনে জানান, এ পর্যন্ত মোট কাজের প্রায় ২০ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে। সাবরাং ট্যুরিজম পার্ক উন্নয়ন কাজ দ্রæতগতিতে এগিয়ে চলছে। তবে দেশি বিনিয়োগের পাশাপাশি বিদেশি বিনিয়োগ এলে কাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করতে আরও সহজ হবে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]