[১]চট্টগ্রামে তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা শিল্পীরা

আমাদের নতুন সময় : 14/10/2020

শাহাদাত হোসেন : [২] জেলার রাউজানে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু হবে আগামী ২২ অক্টোবর। এ উৎসব উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের ২৩২টি পূজা মÐপে উদযাপিত হবে। [৩] সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, শারদীয় দুর্গোৎসব পালনের জন্য প্রতিমা তৈরির কাজ করা হচ্ছে রাউজান উপজেলার কুন্ডেশ্বরী, সত্যের দোকান, রাউজান ফকির হাট কালী বাড়ি, সুলতানপুর আচার্য পাড়ায়, সুলতানপুর বুড়া ঠাকুর আশ্রম, বাইন্যা পুকুর পাড়, পাহাড়তলী ঊনসত্তর পাড়া, নোয়াপাড়া পথের হাটসহ বিভিন্ন এলাকায়। [৪] এসব প্রতিমা তৈরির কাজে ব্যস্ত সময় অতিবাহিত করছেন মৃৎশিল্পীরা। তবে প্রতিমা তৈরির কাজ এখন সম্পন্ন হয়েছে, চলছে রং তুলির কাজ। রাউজান ফকির হাট কালী বাড়ির প্রতিমা তৈরির মৃৎশিল্পী নান্টু পাল বলেন, শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে ২৬টি পূজা মÐপের উদযাপন কমিটির লোকজন থেকে ২৬টি প্রতিমা তৈরির কাজের অর্ডার নিয়েছি। [৫] প্রতিটি প্রতিমা তৈরির অর্ডার নিয়েছি ২৫- ৩০ হাজার টাকা করে। সময়মত প্রতিমা ডেলিভারি দিতে ৬ জন কর্মচারী রেখেছি। প্রতিমা তৈরির কাজে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন তারা। ইতোমধ্যে বাঁশ, কাঠ আর কাদামাটি দিয়ে প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ, চলছে রং তুলি ও সাজসজ্জার কাজ। রং-তুলির আঁচড়ে দুর্গাকে দৃষ্টিনন্দন ও আকর্ষণীয় করে তুলছেন প্রতিমা তৈরীর মৃৎশিল্পীরা। [৬] রাউজান উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি প্রিয়তোষ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক সুমন দে বলেন, করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে এবছর শারদীয় দুর্গোৎসব স্বাস্থ্যবিধি মেনে করতে হবে। উপজেলার ২৩২টি পূজামÐপে চলছে পূজার আয়োজন। [৭] রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, মহামারী করোনার কারণে আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজার আনন্দ এবার সরকারি নির্দেশনা মেনে পালন করতে হবে। রাউজানের প্রতিটি পূজামÐপে প্রশাসনের কঠোর নিরাপত্তা থাকবে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]