• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » [১]নির্বাচনের দুই সপ্তাহ আগেই ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেনের বিপুল বিজয়ের সম্ভাবনার কথা বলছে বিভিন্ন তথ্য


[১]নির্বাচনের দুই সপ্তাহ আগেই ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেনের বিপুল বিজয়ের সম্ভাবনার কথা বলছে বিভিন্ন তথ্য

আমাদের নতুন সময় : 21/10/2020

য় আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] ২০২০ সালের ডেমোক্রেট প্রাইমারি জো বাইডেনকে শক্ত অবস্থানে নিয়ে এসেছে। তিনি শেষ মুহূর্তে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের টিকিট পেয়েছেন তাই নয়, তিনি অর্জন করেছেন শেতাঙ্গ ভোটারদের আস্থা। এর বাইরে তিনি ভোট পেয়েছেন সেসব ভোটারেও, যারা কলেজ পাশ করেননি। ২০১৬ সালের নির্বাচনের এই ধরণের ভোটাররাই ট্রাম্পকে প্রেসিডেন্ট বানিয়েছিলেন। সিএনএন । [৩] ট্রাম্পের বিজয়ে মুখ্য ভুমিকা রেখেছিলো উইসকনসিন, পেনসেলভেনিয়া ও মিশিগান। জরিপ বলছে, এই ৩ রাজ্যে এগিয়ে আছেন বাইডেন। ওহিও আর আইওয়ার মতো রিপাবলিকান রাজ্যেও তিনি বর্তমান প্রেসিডেন্টের সঙ্গে পাল্লা দিচ্ছেন। এই ২ রাজ্যে আগেরবার অতি সহজ জয় হয়েছিলো ট্রাম্পের। কলেজে পড়া ৫৫ শতাংশের বেশি শেতাঙ্গ ভোটারেরও সমর্থন আছে বাইডেনের। পোলস্টার। [৪] ২০১৬ সালে হিলারি ক্লিনটনের বিজয় করা ২০ রাজ্য যদি বাইডেন ধরে রাখতে সক্ষম হনএবং পেনসেলভেনিয়া, উইসকনসিন এবং মিশিগান পুনরুদ্ধার করেন, সান বেল্প অথবা ওহিও বা আইওয়াতে জিততে না পারলেও তিনিই হবেন পরবর্তী মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ফক্স। [৫] ২০১৬ সালে ডেমোক্রেটদের স্তব্ধ করে মিশিগান, উইসকনসিন ও পেনসেলভেনিয়াতে বিজয় পান ট্রাম্প। বিশেষত কলেজে না যাওয়া শেতাঙ্গদের সমর্থন পুরোপুরিই পেয়েছেন তিনি। যা এই ৩ রাজ্যের মূল ভোটার গোষ্ঠী। রাস্টবেল্ট নামে পরিচিত এই ৩ রাজ্যে আবারও ডেমোক্রেটরা জনপ্রিয়তা ফিরে পেয়েছে বলে সব জরিপই বলছে। সিএনএন। [৬] বিশেষজ্ঞদের মতে হিলারি ক্লিনটন নারী হওয়ায় এই রাস্টবেল্টের ভোট পাননি। এই সমস্যা বাইডেনের নেই। পোলস্টান। সম্পাদনা: ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]