• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]লাইসেন্স প্রদানে অনিয়ম ও চালকদের মাদকাসক্তি প্রতিরোধে ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ [২]পথচারীদেরও সচেতন থাকতে হবে


[১]লাইসেন্স প্রদানে অনিয়ম ও চালকদের মাদকাসক্তি প্রতিরোধে ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ [২]পথচারীদেরও সচেতন থাকতে হবে

আমাদের নতুন সময় : 23/10/2020

বাশার নূরু:[৩] প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরও বলেন, ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদানের সময় ভালোভাবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা যেন, ভালো মতো সে ড্রাইভিংটা জানে কি না বা টাকা দিয়ে যেন কেউ ড্রাইভিং লাইসেন্স নিতে না পারে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।
[৪] তিনি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে দেয়া নির্দেশে বলেন, আপনাদের আরেকটা বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে, যারা গাড়ি চালাচ্ছে তারা মাদক সেবন করছে কি না। ডোপ টেস্ট বা মাদক সেবনের বিষয়ে পরীক্ষা করা দরকার। প্রতিটি ড্রাইভারের এই পরীক্ষাটা একান্তভাবে অপরিহার্য্য।
[৫] শেখ হাসিনা বলেন, দেশে টাফিক আইন মেনে চলার বিষয়ে নাগরিক সচেতনতাটা আমাদের খুব বেশি প্রয়োজন। তিনি বলেন, আমরা মুখে খুব বলে টলে যাই, কিন্তু কাজের বেলা আমরা কি দেখি? পাশেই ফুটওভার ব্রিজ, রাস্তার মধ্যখান দিয়ে হেঁটে যাচ্ছে। একটা গাড়ি আসছে একটু হাত দেখিয়েই হাঁটা দিল। এটা একটা যান্ত্রিক ব্যাপার। ব্রেক কষলেও সেটা থামতে কিন্তু কিছু সময় লাগে। হাত দেখালেই থেমে যেতে পারে না।
[৬] দুর্ঘটনা হলে গাড়িচালকদের মারধর না করার অনুরোধ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পাবলিকের মার খাওয়ার ভয়ে, প্রাণের ভয়ে দূর্ঘটনার পর ড্রাইভার কিন্তু গাড়ি চালিয়ে গেল। তার উপর দিয়ে যদি গাড়ি না যায় সে কিন্তু বেঁচে যায়। কিন্তু যেহেতু ড্রাইভারের উপর আক্রমণ হবে, যেহেতু ড্রাইভারকে মার খেতে হবে পাবলিকের, সেজন্য ড্রাইভার আর কিছু তখন দেখে না। সোজা গাড়ি চালায়।
[৭] বৃহস্পতিবার জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস-২০২০ উদযাপনের অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে দেয়া বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। সম্পাদনা: ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]