• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » [১]যুক্তরাষ্ট্রকে আঞ্চলিক শান্তি, স্থিতিশীলতা বিনষ্ট না করার আহবান চীনের [২]লাদাখ ইস্যুতে তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ করার কোনও সুযোগ নেই


[১]যুক্তরাষ্ট্রকে আঞ্চলিক শান্তি, স্থিতিশীলতা বিনষ্ট না করার আহবান চীনের [২]লাদাখ ইস্যুতে তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ করার কোনও সুযোগ নেই

আমাদের নতুন সময় : 29/10/2020

রাশিদুল ইসলাম : [৩] ভারতে চীন দূতাবাস যুক্তরাষ্ট্রকে শীতল যুদ্ধের মানসিকতা পরিহার করতে আহবান জানিয়েছে। ভারতে সফরে এসে চীনের হুমকি মোকাবেলায় যুক্তরাষ্ট্র ভারতের পাশে দাঁড়াবে বলে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও মন্তব্য করেন তারই প্রেক্ষিতে এক বিবৃতিতে ভারতে চীনের দূতাবাস যুক্তরাষ্ট্রকে হুমকি দিয়ে এ অঞ্চলের শান্তি ও স্থিতিশীলতা বিনষ্টের কার্যকলাপ বন্ধের দাবি জানায়। সিনহুয়া। [৪] চীনা দূতাবাসের বিবৃতিতে বলা হয়, পম্পেও বেইজিংকে আক্রমণ করে যা বলছেন তা কূটনৈতিক শিষ্টাচার ও আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন। পম্পেও ও অন্যান্য সিনিয়র মার্কিন কর্মকর্তারা অব্যাহতভাবে চীনের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও আক্রমণাত্মক বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছে। এ অঞ্চলে চীনের সঙ্গে যেসব দেশের চমৎকার সম্পর্ক রয়েছে তা বিনষ্ট করতে উস্কানি দিচ্ছে যা তাদের ঠা-া যুদ্ধের মানসিকতা ও আদর্শিক পক্ষপাতিত্বের পরিচয় বহন করে। চীন এধরনের প্ররোচনার বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছে। [৫] বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাবিত তথাকথিত ‘ইন্দো-প্যাসিফিক কৌশল’ হচ্ছে আধিপত্য বজায় রাখার লক্ষ্যে বিভিন্ন গোষ্ঠী ও গোষ্ঠীর মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি করা এবং ভূ-রাজনৈতিক প্রতিযোগিতায় একচেটিয়া ফায়দা লোটা। লাদাখ পরিস্থিতি চীন ও ভারতের দ্বিপক্ষীয় বিষয় উল্লেখ করে বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে, উভয় পক্ষ কূটনৈতিক ও সামরিক কর্মকর্তাদের ধারাবাহিক বৈঠকের মাধ্যমে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। সম্পাদনা: ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]