• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]শিক্ষাক্রমে দশম শ্রেণি পর্যন্ত থাকছে না শিক্ষা বিভাজন [২]রাশেদা কে চৌধুরীর মতে, শিক্ষকদের কমপক্ষে ১ বছর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে [৩]ড. কামরুল হাসান মামুনের জিজ্ঞাসা, বাংলা মাধ্যম নিয়ে সরকারগুলো কেন এতো খেলে


[১]শিক্ষাক্রমে দশম শ্রেণি পর্যন্ত থাকছে না শিক্ষা বিভাজন [২]রাশেদা কে চৌধুরীর মতে, শিক্ষকদের কমপক্ষে ১ বছর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে [৩]ড. কামরুল হাসান মামুনের জিজ্ঞাসা, বাংলা মাধ্যম নিয়ে সরকারগুলো কেন এতো খেলে

আমাদের নতুন সময় : 22/11/2020

ভইয়া আশিক: [৪] প্রস্তাবিত শিক্ষানীতিতে মাধ্যমিকে বিভাজন না থাকা, পরীক্ষার সময় কমানো ও মূল্যায়ন পদ্ধতির পরিবর্তনসহ যেসব পরিবর্তন আনা হয়েছে তা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন শিক্ষাবিদরা। তাদের মতে, শিক্ষাক্রমের সঙ্গে মিলিয়ে পাঠ্যপুস্তক প্রণয়ন এবং শিক্ষকদের দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণ দেয়া না হলে শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন কঠিন হবে। [৫] এ প্রসঙ্গে তত্ত¡াবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী এ প্রতিবেদককে বলেন, প্রস্তাবিত শিক্ষাক্রম ইতিবাচক। তবে তা বাস্তবায়ন অনেক বড় চ্যালেঞ্জিং হবে। শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন করতে হলে পাঠ্যপুস্তক তৈরি করতে হবে, শিক্ষকদের কমপক্ষে ১ বছর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে। আমরা দেখেছি, সৃজনশীল পদ্ধতি কম থাকা সত্তে¡ও অনেক শিক্ষক তা রপ্ত করতে পারেননি। [৬] ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক, অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান মামুন বলেন, প্রথম থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা সব ধরনের শিক্ষা নিয়ে স্কুলের ১০টি বছর শেষ করবে, এর চেয়ে ধংসাত্মক সিদ্ধান্ত আর হতে পারে না। এমনিতেই আমরা বিজ্ঞানে মানসম্পন্ন শিক্ষার্থী পাচ্ছিলাম না। এখন এই ডাইলুশনের (তরলীকরণের) ফলে ফলাফল আরও খারাপ হবে। [৭] ১৯ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০২২ সাল থেকে নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের কথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি। যে শিক্ষাক্রমে দশম শ্রেণি পর্যন্ত থাকবে না কোনো বিভাগ বিভাজন। সম্পাদনা: রায়হান রাজীব




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]