[১] কারসাজি থামাতে ব্যর্থ হয়েছে ডিএসই

আমাদের নতুন সময় : 26/11/2020

শিমুল রহমান: [২]শেয়ারবাজারে পতন ঠেকাতে পারছে না পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। [৩]পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রকের বড় কর্মকর্তাই দুষলেন স্টোক এক্সচেঞ্জগুলোকে। তার মতে এদের অদক্ষতা ও নিস্ক্রিয়তার কারণে শেয়ারবাজারে কারসাজি প্রথম ধাপে আটকে দেয়া যাচ্ছে না। দায়িত্ব পালনে ছয় মাসের সাফল্য ও ব্যর্থতা নিয়ে একাত্তর টিভির এক সাক্ষাৎকারে বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত ইসলাম এসব কথা জানান। [৫]তিনি বলেন, অন্ধের মত শুধু বিএসইসিসিকে দুষে গেলে কখনই বিশুদ্ধ হবে না পুঁজিবাজার। শস্যের ভিতর ভুত তাড়াতে হবে। শেয়ার বেচাকেনার মূল কেন্দ্র বিশেষ করে ডিএসসিকে শুদ্ধ ও সক্রিয় হতে হবে।
[৬]শিবলী রুবাইয়াত আরও বলেন, সবকিছুতে কেন যেন আমাদের দিকে অংগুলি প্রদর্শন করা হয় যে বিসেক কাজ করছে না। আসলে আমরা তো রেগুলেটর। আমরা তো ডে টু ডে ট্রানজেকশন বা ট্রেডিং নিয়ে পার্টিসিপেট করিও না কাউকে কোন কিছুতে কেনাবেচা করতে বলতেও পারিনা। [৭]তিনি বলেন, বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষায় প্রথম ও গুরুত্বপূর্ণ গেটকিপার ডিএসই-সিএসই । তাই প্রতিদিনের লেনদেনে এদের সক্রিয় নজরদারি জরুরি। [৮]তার মতে, দেশের প্রধান শেয়ার বাজার ডিএসসিতে ব্যবস্থাপনা ও অদক্ষতা এবং আইটি সেবাসহ নানাদিকে দুর্বলতা দুর না করলে ডিএসসিসি বা সরকারের কোন উদ্যোগেই ফলাফল দেবে না। তাই সব যথাযথভাবে করতে ডিএসসিকে চাপে রাখা হয়েছে বলে বলেন তিনি। [৯]বিএসইসির চেয়ারম্যান বলেন, দেশের স্টোক এক্সচেঞ্জগুলো এদের দায়িত্বগুলো ঠিকমত পালন করলেই অনেক কাজ দ্রুত ও সহজ হবে। তখন নিয়ন্ত্রক সংস্থাও পলিসি মেকিং ও পরিকল্পনায় জোর দিয়ে পুঁজিবাজারকে আরও অনেক এগিয়ে নিতে পারবে। সম্পাদনা : সমর চক্রবর্তী




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]