• প্রচ্ছদ » আমাদের বাংলাদেশ » [১]ভারতের উদ্বেগ সত্ত্বেও তিব্বতে ব্রহ্মপুত্রের উপর ৬০০ কোটি কিলোওয়াট জলবিদ্যুত প্রকল্পের জন্য বাঁধ নির্মাণ করতে যাচ্ছে চীন


[১]ভারতের উদ্বেগ সত্ত্বেও তিব্বতে ব্রহ্মপুত্রের উপর ৬০০ কোটি কিলোওয়াট জলবিদ্যুত প্রকল্পের জন্য বাঁধ নির্মাণ করতে যাচ্ছে চীন

আমাদের নতুন সময় : 01/12/2020

লিহান লিমা: [২] প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে অরুণাচল সীমান্তের কাছাকাছি ইয়ারলাং জ্যাংবো নদীর উপরে এই বাঁধটি তৈরি করা হবে। ২০২১ সালে নির্মাণ কাজ শুরু হবে, শেষ হবে ২০২৫ সালে। এই বাঁধ নির্মিত হলে ব্রহ্মপুত্রের পানি প্রবাহ কমে যাবে। গ্রীষ্মে উত্তর-পূর্ব ভারত ও বাংলাদেশে পানি সংকট এবং বর্ষা মৌসুমে বন্যা দেখা দিতে পারে। তবে চীন বলছে, এই বাঁধ থেকে ভারত এবং বাংলাদেশ উপকৃত হবে। দ্য হিন্দু
[৩] এর আগেও ব্রহ্মপুত্রের উপরে একাধিক ছোট বাঁধ নির্মাণ করেছে বেইজিং। নতুন প্রকল্পে উৎপাদিত জলবিদ্যুতের পরিমাণ বিশ্বের বৃহত্তম জলবিদ্যুৎ উৎপাদনকারী প্রকল্প, মধ্য চিনের থ্রি গর্জেস ড্যাম-এর চেয়ে প্রায় তিন গুণ বেশি। গ্লোবাল টাইমস [৪] গত সপ্তাহে এক সম্মেলনে চীনের পাওয়ার কনস্ট্রাকশন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান ইয়্যান ঝিয়াং জানিয়েছেন, ‘ইতিহাসে এমন প্রকল্পের উল্লেখ নেই। এই প্রকল্প চীনের জলবিদ্যুৎ শিল্পে এক ঐতিহাসিক সুযোগ। এটি নির্মাণের মূল উদ্দেশ্য বিদ্যুৎ উৎপাদন হলেও পরিবেশ সংরক্ষণ, জাতীয় নিরাপত্তা, জীবনযাপনের মানোন্নয়ন এবং আন্তর্জাতিক সহযোগিতার লক্ষ্যেই এই বাঁধ নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’ এনডিটিভি [৫] ইয়্যান আরও জানান, এই প্রকল্প বছরে উৎপাদিত বিদ্যুতের অর্ধেক, অর্থাৎ ৩০০ কোটি কিলোওয়াট হবে কার্বনমুক্ত ও পুনর্ব্যবহারযোগ্য। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]