• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]দেশে জিয়াউর রহমানের অন্তত চারটি ভাস্কর্য কিন্তু বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ বিতর্কে নিশ্চুপ বিএনপি


[১]দেশে জিয়াউর রহমানের অন্তত চারটি ভাস্কর্য কিন্তু বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ বিতর্কে নিশ্চুপ বিএনপি

আমাদের নতুন সময় : 04/12/2020

শিমুল মাহমুদ: [২] সরকারি সহযোগিতা ছাড়াই শিক্ষার্থীদের চাঁদা দিয়ে ২০১০ সালের ১৬ মার্চ গোপালগঞ্জ সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজের একাডেমিক ভবনের সামনে নির্মিত হয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রথম ভাস্কর্য।[৩] বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের আগেই ১৯৯৩ সালের ৬ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামে জিয়া স্মৃতি জাদুঘরের সামনে প্রথম জিয়াউর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণ করা হয়। জিয়াউর রহমানের ভাস্কর্য আরও রয়েছে খাগড়াছড়ি শহর, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে। [৪] বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান বলেন, আমরা পর্যবেক্ষণ করছি। ‘সময় হলেই ভাস্কর্য ইস্যূতে বিএনপির তাদের অবস্থান পরিষ্কার করবে’। অপর স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘দলের পক্ষ থেকে আলোচনার পর মন্তব্য করা ভালো।’
[৫] যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, শেখ মুজিবের ভাস্কর্যও তো অনেক আগে থেকেই আছে। এর আগে এরকম বিরোধিতা আর কখনো হয়নি। সরকার উস্কে দিচ্ছে এসব দলগুলোকে।[৬] ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ভাস্কর্য, মুর্তি কিংবা ইসলামিক মুল্যবোধের থেকেও এখন গুরুত্বপূর্ন হয়ে পরেছে দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা। স্বৈরতন্ত্রের সঙ্গে গণতন্ত্র কখনও একসঙ্গে যায় না। ভাস্কর্য- মুর্তির চেয়ে দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে গুরুত্ব দেওয়া উচিৎ। [৭] গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বিষয়ে এখনো বিএনপি কোনো কথা বলছে না। তাদের পরিষ্কার বলা উচিৎ ভাস্কর্য আছে থাকবে। যে সব ধর্মীয় দলগুলো এ বির্তকের সৃষ্টি করছে তাদের বলতে হবে তোমরা ইসলামকে ভুল পথে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছো। আলেমদেরও নৈতিক দায়িত্ব হবে এ বিষয়ে শিক্ষা দেওয়া।[৮] ভাস্কর্য বিতর্ক নিয়ে বিএনপির অবস্থান জানতে দলটির শীর্ষ নেতাদের সাথে যোগাযোগ করা হলে এ বিষয়ে পরিস্কাভাবে কেউ কোনো কথা বলতে রাজি হয়নি।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]