• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]বাংলাদেশের করোনা ভ্যাকসিন তৈরির সক্ষমতা রয়েছে: প্রধানমন্ত্রী [২]জাতিসংঘের বিশেষ অধিবেশনে দেওয়া ভাষণে ভ্যাকসিনের প্রযুক্তি হস্তান্তর ও বিশ্ব জনপণ্য হিসেবে বিবেচনার আহ্বান


[১]বাংলাদেশের করোনা ভ্যাকসিন তৈরির সক্ষমতা রয়েছে: প্রধানমন্ত্রী [২]জাতিসংঘের বিশেষ অধিবেশনে দেওয়া ভাষণে ভ্যাকসিনের প্রযুক্তি হস্তান্তর ও বিশ্ব জনপণ্য হিসেবে বিবেচনার আহ্বান

আমাদের নতুন সময় : 05/12/2020

কূটনৈতিক প্রতিবেদক: [৩] শুক্রবার জাতিসংঘের ৩১তম বিশেষ অধিবেশনে ভার্চুয়ালি দেওয়া বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ সুযোগ পেলে ভ্যাকসিন তৈরি করতে প্রস্তুত রয়েছে। ডব্লিউএইচও’র অ্যাক্ট এবং কোভাক্স সুবিধার উদ্যোগ এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। [৪] তিনি বলেন, কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বজুড়ে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ও অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিয়েছে। যখন ভ্যাকসিন প্রাপ্তির কথা আসে, তখন কাউকে পেছনে রাখা ঠিক হবে না। যথাসময়ে ন্যায্যতার ভিত্তিতে ও সাশ্রয়ী মূল্যে সবার জন্য মানসম্মত ভ্যাকসিন প্রাপ্তি নিশ্চিত করা প্রয়োজন। [৫] মহামারি অনেক মানুষকে আরও দরিদ্র করে ফেলেছে এবং আরও অনেককে ক্রমশ দারিদ্র্যের দিকে ঢেলে দিচ্ছে। সব দেশে অপুষ্টি, বৈষম্য ও ক্রমবর্ধমান অসমতা চেপে বসছে এবং শিক্ষাব্যবস্থা ব্যাহত হয়েছে। মানুষের জীবন-জীবিকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
[৬] প্রধানমন্ত্রী বলেন, অর্থনৈতিক সহায়তাসহ কিছু অগ্রাধিকার ক্ষেত্রে জরুরি মনোযোগ এবং সহযোগিতা আরও জোরদার করা প্রয়োজন। [৭] সরকারগুলোর পাশাপাশি জাতিসংঘ, আইএফআই, সুশীল সমাজকে তাদের নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করতে হবে এবং কোভিড-১৯ মোকাবেলায় একে অপরকে সক্রিয়ভাবে সহযোগিতা করতে হবে। [৮] মহামারিতে বাংলাদেশ মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের অর্থনীতি, জীবন-জীবিকা ও অভিবাসী জনগোষ্ঠীকে ব্যাপক প্রভাবিত করেছে। আমাদের উন্নয়নকে বিপর্যস্ত করে তুলেছে। সম্পাদনা: সমর চক্রবর্তী, সালেহ্ বিপ্লব




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]