• প্রচ্ছদ » গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ » [১]সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত প্যাট্রিসিয়া বিউটেনিস বললেন, এক-এগারোর সময় দেশ ছাড়ার পাঁয়তারা করেন প্রতিমন্ত্রী বাবর [২]যুক্তরাষ্ট্র কিংবা যুক্তরাজ্যের ভিসা চেয়েছিলেন, আমরা দেইনি


[১]সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত প্যাট্রিসিয়া বিউটেনিস বললেন, এক-এগারোর সময় দেশ ছাড়ার পাঁয়তারা করেন প্রতিমন্ত্রী বাবর [২]যুক্তরাষ্ট্র কিংবা যুক্তরাজ্যের ভিসা চেয়েছিলেন, আমরা দেইনি

আমাদের নতুন সময় : 22/12/2020

বাশার নূরু: [৩] ২০১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ফরেন সার্ভিস থেকে অবসরে যাওয়ার পর দেশটির পররাষ্ট্রবিষয়ক কথ্য ইতিহাস প্রকল্পকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বিউটেনিস এভাবেই বিএনপি নেতা ও সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরের প্রসঙ্গ টেনেছেন। [৪] বিউটেনিস বলেন, আমি জানি, অন্য কূটনীতিকসহ কিছু লোক মনে করতেন, বাবরের সঙ্গে আমার দূরত্ব বজায় রাখা উচিত। সম্ভবত যে কাজটি আমার করা উচিত হয়নি তা হলো, বাগদাদের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়ার আগে বাবরের বিদায়ী নৈশভোজের আমন্ত্রণ গ্রহণ করা। অন্যান্য রাষ্ট্রদূত ও আমার সঙ্গে বাবর একটি সম্পর্ক গড়ে তুলেছিলেন। কারণ তিনি বিশ্বাস করতেন, এতে তার ক্ষমতা ও মর্যাদা বাড়বে। [৫] বিউটেনিস বলেন, সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার দায়িত্ব নেওয়ায় বাবর জানতেন, তিনি ‘টার্গেট’ হবেন। তিনি আমাকে ও ব্রিটিশ হাইকমিশনারকে তার সঙ্গে দেখা করার জন্য ডাকলেন। আমরা তাতে সাড়া দিই। বাবর বলেছিলেন, তার শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা আছে এবং চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্র বা যুক্তরাজ্যে যাওয়া প্রয়োজন। তবে আমরা জানতাম, নিরাপদে থাকার জন্য তিনি বাংলাদেশ ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করছেন। তিনি কী বিষয়ে আলোচনা করতে চাইছেন তা আমরা আগেই আঁচ করতে পেরেছিলাম এবং জবাবটাও ঠিক করে নিয়েছিলাম। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]