• প্রচ্ছদ » » ‘ফাইজারের ভ্যাক্সিনের কারণে নরওয়েতে ২৩ জন মানুষ মারা গিয়েছেন’ এই খবরের শুধুমাত্র হেডিং টা না পড়ে ভিতরে কি লিখেছে সেটা জানার চেষ্টা করি


‘ফাইজারের ভ্যাক্সিনের কারণে নরওয়েতে ২৩ জন মানুষ মারা গিয়েছেন’ এই খবরের শুধুমাত্র হেডিং টা না পড়ে ভিতরে কি লিখেছে সেটা জানার চেষ্টা করি

আমাদের নতুন সময় : 18/01/2021

ডা. আরমান রহমান : ফাইজারের ভ্যাক্সিন এবং নরওয়েতে ওল্ডহোমে ৮০ উর্ধ্বে জরাক্লিষ্ট মানুষের মৃত্যু প্রসঙ্গে। ‘ফাইজারের ভ্যাক্সিনের কারণে নরওয়েতে ২৩ জন মানুষ মারা গিয়েছেন’ আসুন আমরা এই খবরের শুধুমাত্র হেডিং টা না পড়ে ভিতরে কি লিখেছে সেটা জানার চেষ্টা করি। এখানে বার্ধক্য জনিত রোগে আক্রান্ত অত্যন্ত ভঙ্গুর স্বাস্থ্যের ৮০ বছরের উপর বয়সের ২৩ জন মানুষের কথা বলা হয়েছে। স্টেইনার ম্যাডসেন, নরওয়ের মেডিসিন এজেন্সির ডাইরেক্টর সাহেব বলছেন ‘ভ্যাক্সিন দেওয়ার পরে যদিও তাদের মৃত্যু হয়েছে, কিন্তু এই মৃত্যুর সাথে ভ্যাক্সিনের কোন যোগাযোগ আমরা এখনো পাইনি’। উল্লেখ্য নরওয়েতে প্রতি সপ্তাহে এই ধরনের কেয়ার হোমে ৪০০ মানুষ মৃত্যু বরণ করে থাকে। তারা এই ধরনের বয়স্ক রোগীদের ভ্যাক্সিন দেওয়ার ব্যাপারে আরো সতর্ককতা অবলম্বন করার জন্যে ডাক্তারদের আহŸান জানিয়েছেন। এই ২৩ জনের ১৩ জনের উপর চালানো আপাত পরীক্ষায় দেখা যায়-ভ্যাক্সিনের সাধারণ সাইডইফেক্ট যেমন জ্বর, বমির ভাব এবং ডায়রিয়া তাদের মৃত্যুর কারণ হয়ে থাকতে পারে। ধারণা করা হচ্ছে, সাধারণ মানুষের ক্ষেত্রে এইসব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া তেমন প্রভাব না ফেললেও এই বয়ষ্ক এবং অসুস্থ মানুষদের তা সহ্য করে নেওয়ার ক্ষমতা নাও থাকতে পারে। হয়ত এই সমস্ত পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া তাদের বার্ধক্যজনিত অসুস্থতাকে আরো বাড়িয়ে দিতে পারে। ম্যাডসেন সাহেব বলেছেন তারা এই মৃত্যু নিয়ে আতংকিত নয়, কারণ এই সব মানুষ আগে থেকেই গুরুতর রোগে ভুগছিলেন, কাজেই এই মৃত্যু তাদের ভ্যাক্সিন কার্যক্রম কে কোনভাবেই প্রভাবিত করবে না। আশা করি ভ্যাক্সিনের খবর প্রচারে সংবাদ মাধ্যম আরো দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেবে এবং সাধারণ মানুষ ও শুধুমাত্র শিরোনাম দেখেই যে কোনো ভ্যাক্সিনের কার্যকারিতা নিয়ে বানোয়াট স্ট্যাটাস সোশ্যাল মাধ্যমে প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকবে। লেখক: ডাবলিন, আয়ারল্যান্ড থেকে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]